কম বৃষ্টিপাতের জেরে ২০১৪ সাল হতে চলেছে দেশের খরার বছর

Updated: Aug 29, 2014, 03:21 PM IST
কম বৃষ্টিপাতের জেরে ২০১৪ সাল হতে চলেছে দেশের খরার বছর

কম বৃষ্টিপাতের কারণে আবারও খরার মুখে দেশ। ২০১৪ সাল দেশের খরার বছর বলে ঘোষনা করতে চলেছে মৌসম ভবন।

অগাস্ট মাসের মাত্র ৩ দিন বাকি। এই পর্যন্ত বছরে বৃষ্টিপাতের পরিমান পর্যালোচনা করে দেখা গিয়েছে স্বাভাবিকের তুলনায় ১৮ শতাংশ কম বৃষ্টি হয়েছে এই বছর। দেশে জলবায়ু অনুযায়ী বিভক্ত ৩৬টি অঞ্চলের ১৩টিতে স্বাভাবিকের তুলনায় কম বৃষ্টি হয়েছে। অর্থাত্‍ প্রায় ৩৬ শতাংশ এলাকায় খরা দেখা দিয়েছে এই বছর।

মৌসম ভবনের সংজ্ঞা অনুযায়ী যখন সারা দেশে স্বাভাবিক থেকে কম বৃষ্টিপাতের পরিমান ১০ শতাংশ ছাড়িয়ে যায়, ও দেশের ২০ থেকে ৪০ শতাংশ এলাকায় খরা দেখা দেয়, সেই বছরকে খরার বছর হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। সেই অনুযায়ী এই বছর বর্ষার মরসুমের শেষে খরা ঘোষনা করতে পারে মৌসম ভবন। ইন্ডিয়া মেটরোলজিক্যাল ডিপার্টমেন্টের পুনে শাখার প্রধান আবহাওয়াবিদ জানালেন, "মধ্য ভারতে এখনও বৃষ্টিপাতের সম্ভবনা রয়েছে। কিন্তু, উত্তর-পশ্চিম ভারতে বৃষ্টিপাত খুবই অনিশ্চিত।"

পঞ্জাব, হরিয়ানা ও উত্তর প্রদেশের পশ্চিম প্রান্তে খরা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। গত ২০ দিনে উল্লেখযোগ্য ভাবে হ্রাস পেয়েছে বৃষ্টিপাতের পরিমান। পঞ্জাবে এ বছর স্বাভাবিকের থেকে ৬৫ শতাংশ কম বৃষ্টি হয়েছে, হরিয়ানায় বৃষ্টিপাতের পরিমান স্বাভাবিকের থেকে ৬৬ শতাংশের কম। উত্তর প্রদেশের পশ্চিমে ১ জুন থেকে স্বাভাবিকের থেকে ৫৮ শতাংশ কম বৃষ্টি হয়েছে। উত্তর পশ্চিম ভারতের অন্তত ২৬টি জেলায় বৃষ্টিপাতের পরিমান স্বাভাবিকের থেকে ৩০ শতাংশের কম। এর মধ্যে রয়েছে পঞ্জাবের বরনালায় স্বাভাবিকের মাত্র ১০ শতাংশ বৃষ্টি হয়েছে। অন্যদিকে রোহটাকে হয়েছে স্বাভাবিকের মাত্র ১১ শতাংশ বৃষ্টি।

গত ১৫ অগাস্ট থেকে পঞ্জাব, হরিয়ানা ও উত্তর প্রদেশে বৃষ্টিপাত উল্লেখযোগ্য ভাবে কমলেও মধ্য ভারতে বেশ কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে। অগাস্ট মাসে দেশে মোট ২৬১ মিলি বৃষ্টি হওয়ার কথা। যেখানে ২৮ অগাস্ট পর্যন্ত ২০৭.০ মিলি বৃষ্টি হয়েছে। অর্থাত্‍ সারা মাসে বৃষ্টিপাতের পরিমান স্বাভাবিকের থেকে ২০ শতাংশ কম।