তরুণীর বন্ধুর সাক্ষাৎকার, জি নিউজের বিরুদ্ধে মামলা পুলিসের

দিল্লি গণধর্ষণকাণ্ডে নির্যাতিতা তরুণীর বন্ধুর সাক্ষাত্কার সম্প্রচারের ঘটনায় জি নিউজের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল পুলিস। শনিবার জি নিউজের এডিটর ইন চিফ সুধীর চৌধুরীকে ডেকে পাঠায় পুলিস। জি নিউজের বিরুদ্ধে দিল্লি পুলিসের এই আচরণের নিন্দায় সরব হয়েছে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল।

Updated: Jan 5, 2013, 09:16 PM IST

দিল্লি গণধর্ষণকাণ্ডে নির্যাতিতা তরুণীর বন্ধুর সাক্ষাত্কার সম্প্রচারের ঘটনায় জি নিউজের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল পুলিস। শনিবার জি নিউজের এডিটর ইন চিফ সুধীর চৌধুরীকে ডেকে পাঠায় পুলিস। জি নিউজের বিরুদ্ধে দিল্লি পুলিসের এই আচরণের নিন্দায় সরব হয়েছে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল।
শুক্রবার জি নিউজেই প্রথমবার ১৬ ডিসেম্বরের নারকীয় ঘটনার কথা বিশদে জানান দামিনীর বন্ধু। তিনি নিজেই জি নিউজে তাঁর মর্মান্তিক অভিজ্ঞতার কথা জানাতে চেয়েছিলেন। কিন্তু চাঞ্চল্যকর সেই সাক্ষাত্কার সম্প্রচারের সঙ্গে সঙ্গেই নড়েচড়ে বসে দিল্লি পুলিস। এফআইআর দায়ের করা হয় জি নিউজের বিরুদ্ধে। ফৌজদারি দণ্ডবিধির ২২৮-এর এ ধারায় নিগৃহীতের পরিচিতি প্রকাশ দণ্ডনীয়। এই ধারাতেই জি নিউজের বিরুদ্ধে এফআইআর করা হয়। জি নিউজের এডিটর ইন চিফ সুধীর চৌধুরীকে ডেকে পাঠায় পুলিস। এরপর এফআইআরের প্রতিলিপি চাইতে  আদালতে যান সুধীর চৌধুরী। অডিও ভিজুয়াল মাধ্যমে তাঁর বয়ান রেকর্ড করার জন্যও আদালতে আর্জি জানান তিনি।
জি নিউজে সম্প্রচারিত চাঞ্চল্যকর ওই সাক্ষাত্কারে যদিও দোষের কিছু দেখছে না রাজনৈতিক মহল। পুলিস মামলা প্রত্যাহার না করলে পথে নেমে বিক্ষোভ দেখাবে বিজেপি। জানিয়েছেন বিজেপি নেতা রবিশঙ্কর প্রসাদ।
উপরোক্ত ধারায় নিগৃহীতর সুরক্ষার স্বার্থেই তাঁর পরিচয় গোপন রাখা প্রয়োজন। কিন্তু সিপিআইএম নেত্রী বৃন্দা কারাট মনে করেন, এক্ষেত্রে সেই ধারা আদৌ কার্যকর নয়।