মহারাষ্ট্র সচিবালয়ে বিধ্বংসী আগুনে মৃত ৩, তদন্তের নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর

মহারাষ্ট্র সচিবালয়ে বিধ্বংসী আগুনে মৃত ৩, তদন্তের নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর

মহারাষ্ট্র সচিবালয়ে বিধ্বংসী আগুনে মৃত ৩, তদন্তের নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর২৬/১১-র তাজ প্যালেসের পর ২১/৬-এর রাজ্য মন্ত্রণালয়! ঘন কালো ধোঁয়া আর লেলিহান শিখার যুগলবন্দির ধরনে মিল রয়েছে অনেকটাই। মিল রয়েছে, আকাশ চিরে চক্কর কাটা সামরিক হেলিকপ্টারের দৃশ্যে। তবে লস্কর-বাহিনীর সন্ত্রাস নয়, এবার দেশের বাণিজ্যিক রাজধানীর প্রশাসনিক প্রাণকেন্দ্রে আগুন জ্বলেছে আকস্মিক দুর্ঘটনায়। প্রাথমিকভাবে দমকলের অনুমান, শর্ট সার্কিট থেকেই এদিন বিধ্বংসী আগুন লেগেছে মহারাষ্ট্র সচিবালয়ে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ৩টে নাগাদ সচিবালয়ের চতুর্থ তলে মহারাষ্ট্রের আদিবাসী উন্নয়নমন্ত্রী মন্ত্রী, এনসিপি নেতা বব্বন রাও পচপুতের কেবিন থেকে ঘন ধোঁয়া বেরোতে দেখা যায়। সূত্রে খবর, এর পর আগুন ছড়িয়ে পড়ে প্রবীণ কংগ্রেস নেতা তথা বনমন্ত্রী  পতঙ্গরাও কদমের দফতর এবং মুখ্যমন্ত্রী পৃথ্বীরাজ চহ্বানের হাতে থাকা নগরোন্নয়ন দফতর-সহ ৪ ও ৫ তলার অন্যান্য কার্যালয়ে। আগুন ছড়িয়ে পড়ে ৬ তলায় মুখ্যমন্ত্রী পৃথ্বীরাজ চৌহানের দফতরেও। রাজ্য অথিতিশালা 'সহ্যাদ্রী'তে বৈঠক থাকার কারণে মুখ্যমন্ত্রী সেই সময় দফতরে ছিলেন না। দ্রুত ঘটনাস্থলে মুম্বই পুলিসের বিশাল বাহিনী পৌঁছয়। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে প্রথমে দমকলের ২৫টি ইঞ্জিন ও পরে আরও ১৩টি ইঞ্জিন নিয়ে আসা হয়। কিন্তু প্রাথমিকভাবে আগুন নিয়ন্ত্রণে সাফল্য আসেনি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে, দমকলের পাশাপাশি কাজ শুরু করে ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট গ্রুপও। ঘটনাস্থলে পৌঁছয় মুম্বই পুলিসের কুইক রেসপন্স টিম এবং রাজ্যের কম্যান্ডো স্কোয়াড ফোর্স ওয়ানের কর্মীরা। উদ্ধারকাজে হাত লাগায় নৌবাহিনীর দুটি দলও। এমনকী উদ্ধারকাজে নামানো হয় হেলিকপ্টারও। পত্রপাঠ ৩টি হেলিকপ্টার উড়ে এসে ফোম ফেলে আগুন নেভানোর চেষ্টা শুরু হয়। ৪ ঘণ্টার চেষ্টার পর অবশেষে সন্ধ্যা ৭টা নাগাদ আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। ঘটনায় ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এঁদের মধ্যে একজনের দেহ উদ্ধার হয়েছে সাততলার উপমুখ্যমন্ত্রীর কমিটি রুম থেকে। অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় ষোলো জনকে ভর্তি করা হয় বিভিন্ন হাসপাতালে। রাতে ফের ক্যান্টিনের সিলিন্ডার ফেটে আগুন লাগে সচিবালয়ে। ঘটনায় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী।

বিধ্বংসী আগুনে ভস্মীভূত হয়ে গিয়েছে মহারাষ্ট্র সচিবালয়ের তিনটি তলা। ভস্মীভূত হয়ে গেছে রাজ্যের উপমুখ্যমন্ত্রী অজিত পাওয়ারের দফতরও। সূত্রের খবর আগুনে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে পুর উন্নয়ন সহ স্বরাষ্ট্র, রাজস্ব এবং শিল্প দফতর। জল্পনা দানা বেঁধেছে, আদর্শ আবাসন কেলেঙ্কারীতে সরাসরিভাবে জড়িত পুর উন্নয়ন দফতরে আগুনের জেরে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্র পুড়ে গেছে। তবে সিবিআই-এর তরফে জানানো হয়েছে, তাদের হাতে আবাসন কেলেঙ্কারি সংক্রান্ত সমস্ত নথিপত্রই রয়েছে।









First Published: Thursday, June 21, 2012, 23:46


comments powered by Disqus