মত্‍সজীবী হত্যাকাণ্ডের তদন্তে সহযোগিতা করবে ইতালি : টার্জি

Last Updated: Tuesday, February 28, 2012 - 16:25

কোল্লাম উপকূলে ভারতীয় মত্‍সজীবী হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে কেন্দ্রীয় বিদেশমন্ত্রী এসএম কৃষ্ণর সঙ্গে বৈঠক করলেন ইতালির বিদেশমন্ত্রী গিউলিও টার্জি। মঙ্গলবার নয়াদিল্লিতে বৈঠক শেষে টার্জি জানান, ঘটনার তদন্তে ইতালি সরকার, ভারতের সঙ্গে সব রকম সহযোগিতা করবে। তিনি বলেন, ``বিষয়টিতে বন্ধুত্বপূর্ণ ভাবেই মিটমাট করতে চায় ইতালি।``
এর আগে, ২ মত্‍সজীবীকে গুলি করে হত্যার অভিযোগে ইতালীয় জাহাজের ২ নিরাপত্তারক্ষীকে গ্রেফতার করে কোচি পুলিস। এই ঘটনার তীব্র সমালোচনা করে রোম। টার্জি অভিযোগ করেন, রাষ্ট্রসঙ্ঘের সনদ এবং ইতালির আইন অনুযায়ী সম্ভাব্য জলদস্যু হানা ঠেকাতে `এনরিকে লেক্সে` জাহাজে সশস্ত্র রক্ষী মোতায়েন করা হয়েছিল। তাই তাদের গ্রেফতার করে আন্তর্জাতিক আইন ভেঙেছে ভারত।

তবে ভারতে এসে অনেকটাই সুর নরম করেছেন টার্জি। ভারত সফরে এসে এদিন টার্জি জানান, ২ ভারতীয় মত্‌সজীবীর মৃত্যুতে ইতালির মানুষ শোকাহত। বিষয়টিতে রোমের অবস্থান নিয়ে ইতালির বিদেশমন্ত্রী বলেন, ``এই ইস্যুতে আন্তর্জাতিক আইন মোতাবেক চলবে ইতালি সরকার। কিন্তু ভারত সরকার, ভারতের আইন মেনে চলতে চাইছে। ফলে কিছু বিষয়ে দ্বিপাক্ষিক মতের অমিল হচ্ছে। ভারতের সঙ্গে ইতালির সম্পর্ক মজবুত। পারস্পরিক বোঝাপড়া ও সহযোগিতার মাধ্যমে বিষয়টি দেখা হচ্ছে।``
সূত্রে খবর, নিহত মত্‍সজীবীদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দিতে পারে ইতালি সরকার। তবে রোমের তরফে আন্তর্জাতিক আইন মোতাবেক চলার কথা বললেও, ধৃত ২ ইতালীয় নিরাপত্তারক্ষীর শুনানি ভারতেই চালানোর ব্যাপারে অনড় কেন্দ্র। গত ১৫ ফেব্রুয়ারি ভোররাতে কেরলের কোল্লাম উপকূলে জলদস্যুদের জলযান বলে ভুল করে ভারতীয় মত্‍সজীবীদের একটি নৌকার উপর গুলি চালান `এনরিকা লেক্সে`র রক্ষীরা। গুলিতে আজেশ বিঙ্কি এবং জালাস্টেন নামে ২ মত্‍স্যজীবীর মৃত্যু হয়। অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচেন ওই জলযানে থাকা বাকি ৯ জন মত্সজীবী। তাঁদের অভিযোগ, কোনওরকম পূর্ব-সতর্কতা ছাড়াই গুলি চালানো হয় এনরিকে থেকে। ১৯ ফেব্রুয়ারি এই ঘটনায় অভিযুক্ত `এনরিকা লেক্সে`র ২ নিরাপত্তারক্ষীকে গ্রেফতার করে কোচি পুলিস।



First Published: Tuesday, February 28, 2012 - 16:25


comments powered by Disqus