Assembly Election Results 2017

সিবিআই রায়ে ৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত স্থগিতাদেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট

কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআইকে অসাংবিধানিক রায় দিয়েছে গুয়াহাটি হাইকোর্ট। শনিবার এই রায়ের বিরোধিতায় শীর্ষ আদালতের দারস্থ হচ্ছে কেন্দ্র। জরুরী ভিত্তিতে আপিল শোনার আবেদন পেয়ে আজ সন্ধের মধ্যেই সরকার পক্ষের কথা শোনার আশ্বাস দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। অপরাধ তদন্তের অধিকার খুইয়েছে কেন্দ্রের সবচেয়ে বড় গোয়েন্দা সংস্থা। গুয়াহাটি হাইকোর্টের মতে সরকারি সিবিআই কোনও অপরাধের তদন্ত করতে পারবে না। শুধুমাত্র জিজ্ঞাসা করার অধিকার আছে সরকারি গয়েন্দা সংস্থাটির। গোয়েন্দা সংস্থার আধিকারিকরা মনে করছেন, আদালতের রায়কে চ্যালেঞ্জ না করলে সমস্ত তদন্তের কাজ স্থগিত রাখতে হবে।

Updated: Nov 9, 2013, 02:03 PM IST

সিবিআই সম্পর্কে গুয়াহাটি হাইকোর্টের রায়ে স্থগিতাদেশ দিন সুপ্রিম কোর্ট। ৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত স্থগিতাদেশ দিল শীর্ষ আদালত। নির্দেশের ওপর স্থগিতাদেশ চায় কেন্দ্র।
কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআইকে অসাংবিধানিক রায় দিয়েছে গুয়াহাটি হাইকোর্ট। শনিবার এই রায়ের বিরোধিতায় শীর্ষ আদালতের দারস্থ হয় কেন্দ্র। জরুরী ভিত্তিতে আপিল শোনার আবেদন পেয়ে আজ সন্ধের মধ্যেই সরকার পক্ষের কথা শোনার আশ্বাস দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। অপরাধ তদন্তের অধিকার খুইয়েছে কেন্দ্রের সবচেয়ে বড় গোয়েন্দা সংস্থা। গুয়াহাটি হাইকোর্টের মতে সরকারি সিবিআই কোনও অপরাধের তদন্ত করতে পারবে না। শুধুমাত্র জিজ্ঞাসা করার অধিকার আছে সরকারি গয়েন্দা সংস্থাটির। গোয়েন্দা সংস্থার আধিকারিকরা মনে করছেন, আদালতের রায়কে চ্যালেঞ্জ না করলে সমস্ত তদন্তের কাজ স্থগিত রাখতে হবে।
এফআইআর-এর ভিত্তিতে তদন্ত চালিয়ে যেতে পারে না সিবিআই। এমনকী সিবিআই কোনও পুলিস বাহিনী নয় বলেই মত দিয়েছে আদালত। গুয়াহাটি আদালতের এই রায়ের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র সরকার। প্রধানমন্ত্রীর দফতরের প্রতিমন্ত্রী ভি নারায়ণস্বামী জানিয়েছেন, "আমরা বিষয়টি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করব।" আইনি প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছে পিএমও।
আদালত জানিয়েছে, দিল্লি স্পেশাল পুলিস এস্টাব্লিশমেন্ট অ্যাক্ট ১৯৪৬-এর আওতায় নির্মিত কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সি বি আই-য়ের কোনও ঘটনার তদন্ত করার অধিকার নেই। ৮৯ পাতার রায়ে উল্লেখ করা হয়েছে, "কোনও ঘটনায় সিবিআইয়ের মামলা দায়ের করা, অপরাধীকে গ্রেফতার করা, খোঁজ চালানো বা বাজেয়াপ্ত করা সবই আইন বহির্ভুত।"
বর্তমানে কয়লা কেলেঙ্কারি থেকে টু জি টেলিকম দুর্নীতি মামলার তদন্তভার রয়েছে সরকারি সংস্থাটির হাতে। গুয়াহাটি আদালত গোয়েন্দা সংস্থার বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তলায় এই সমস্ত `হাই প্রোফাইল` মামলায় প্রভাব পড়বে বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।