দিল্লিতে গলায় রড ঢুকিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা, গ্রেফতার অভিযুক্ত

আরও একবার দেশের রাজধানীর নারী সুরক্ষার হাল বেআব্রু হয়ে গেল। দক্ষিণ দিল্লির লাজপত নগরের ১৯ বছরের এক তরুণীর বাড়িতেই তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করল এক ইলেকট্রিক মিস্ত্রী। মেয়েটি সাহায্যের জন্য চিৎকারকে বন্ধ করতে তাঁর গলায় লোহার রড ঢুকিয়ে দিল ঐ ব্যক্তি।

Updated: Feb 6, 2013, 10:47 AM IST

আরও একবার দেশের রাজধানীর নারী সুরক্ষার হাল বেআব্রু হয়ে গেল। দক্ষিণ দিল্লির লাজপত নগরের ১৯ বছরের এক তরুণীর বাড়িতেই তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করল এক ইলেকট্রিক মিস্ত্রী। মেয়েটি সাহায্যের জন্য চিৎকারকে বন্ধ করতে তাঁর গলায় লোহার রড ঢুকিয়ে দিল ঐ ব্যক্তি।
মঙ্গলবার বিষয়টি প্রকাশ্যে আসলে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে পুলিস।
চলতি সপ্তাহের সোমবার সন্ধে সাড়ে ৮টা নাগাদ অনিল কুমার নামক এক ইলেক্ট্রিক মিস্ত্রী ইলেক্ট্রিকের মাসিক পাওনা আদায়ের জন্য ওই তরুণীর বাড়িতে যায়। সেখানে মেয়েটিকে একা পেয়ে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। মেয়েটি অনিল কুমারকে বাধা দিয়ে সাহায্যের জন্য চিৎকার করতে থাকলে সে মেয়েটির গলার মধ্যে লোহার রড ঢুকিয়ে দেয়।
মেয়েটির চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে যান। কিন্তু ততক্ষণে অনিল কুমার পালিয়ে যায়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় মেয়েটিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অপারেশনের পরেও এখনও মেয়েটির সঙ্কট কাটেনি বলেই সূত্রের খবর।
পরে হরিয়ানার ফরিদাবাদ থেকে অনিল কুমারকে পুলিস গ্রেফতার করেছে।
দিল্লির বাসে গণধর্ষণ কাণ্ডের পর দেশ জোড়া প্রতিবাদের জেরে ফাস্টট্র্যাক কোর্ট গঠন করে বিচার শুরু হয়ে গেছে। কেন্দ্রীয় সরকারের নারীনির্যাতন বিরোধী নয়া অর্ডিন্যান্সে শিলমোহর লাগিয়েছেন রাষ্ট্রপতি। কিন্তু তাতেও যে রাজধানী তথা সমগ্র দেশে নারী সুরক্ষার বেহাল দশার বিন্দুমাত্র পরিবর্তন হয়েনি লাজপর নগরের ঘটনা আরও একবার তা প্রমাণ করল।