ধর্ষণ শাস্তি হিসাবে মৃত্যুদণ্ডের দাবি জয়ললিতার

Last Updated: Tuesday, January 1, 2013 - 18:56

ধর্ষণ রুখতে বিশেষ উদ্যোগী হল তামিলনাড়ু সরকার। ধর্ষণের শাস্তি হিসেবে মৃত্যুদণ্ড দাবি করলেন তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতা। এজন্য তামিলনাড়ু সরকার কেন্দ্রের কাছে আইন সংশোধনেরও সুপারিশ করবে। মহিলাদের নিরাপত্তা বাড়াতে তেরো দফা কর্মসূচিরও ঘোষণা করেন তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর ঘোষণা, ধর্ষণে নির্যাতিতার যাবতীয় চিকিত্‍‍সা খরচ বহন করবে রাজ্য সরকার। ধর্ষণের বিচারও হবে বিশেষ ফাস্টট্র্যাক আদালতে।
ধর্ষণকাণ্ডে উত্তাল গোটা দেশ। ইতিমধ্যেই সংসদে  ধর্ষকের মৃত্যুদণ্ডের সওয়াল করেছেন অনেক সাংসদ। শুরু হয়েছে আইন সংশোধণের তোড়জোড়ও। এবারে প্রথম সেই সওয়াল করল কোনও রাজ্য সরকার। তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতা  জানালেন, মৃত্যুদন্ডের পাশাপাশি দোষী ব্যাক্তির যৌন সংসর্গের ক্ষমতা নষ্ট করে দেওয়ারও পক্ষে তাঁর সরকার। এজন্য কেন্দ্রের কাছে আইন সংশোধনের সুপারিশ জানানো হবে। নতুন বছরের শুরুর দিনই মহিলাদের সুরক্ষায় রাজ্যে আরও ১৩ দফা কর্মসূচির ঘোষণা করেন তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী।
 
জানিয়ে দেন, তামিলনাড়ুতে ধর্ষণের মামলার বিচার হবে ফাস্ট ট্র্যাক কোর্টে। এজন্য প্রতিটি জেলায় মহিলাদের জন্য ফাস্টট্র্যাক আদালতের ব্যবস্থা করবে সরকার। নির্যাতিতা মহিলার যাবতীয় চিকিত্‍সার খরচও তামিলনাড়ু সরকার বহন করবে বলে জানান জয়ললিতা। দিল্লি গণধর্ষণকাণ্ডে মানুষের প্রতিবাদের মুখে এই মহিলাদের জন্য নতুন হেল্পলাইন চালু করেছে শীলা দীক্ষিত সরকার। যেখানে ফোন করে যৌন নিগ্রহের আশঙ্কার কথা জানাতে পারেন মহিলারা। এবারে সেই ধাঁচেই বিশেষ হেল্পলাইন চালুর ঘোষণা করেছেন জয়ললিতাও।



First Published: Tuesday, January 1, 2013 - 18:56


comments powered by Disqus