প্রাক্তন প্রেমিকার চিঠি ধরিয়ে দিল বিট্টিকে, তদন্তে প্রকাশ

Last Updated: Tuesday, March 12, 2013 - 18:19

প্রাক্তন প্রেমিকার গোপন চিঠিই শেষে কাল হল। তার জেরেই ছ`বছর পুলিসের চোখে লাগাতার ধুলো দেওয়ার পর অবশেষে গত শনিবার পুলিসের জালে ধরা পড়ে বিট্টি মোহান্তি। ২০০৬-এ রাজস্থানে এক জার্মান ছাত্রীকে ধর্ষণের অপরাধে একটি ফাস্টট্র্যাক কোর্টের নির্দেশে সাত বছরের সশ্রম কারাদণ্ড হয় ওডিশার শীর্ষ স্থানীয় প্রাক্তন পুলিস কর্তা বি বি মোহান্তির পুত্র বিট্টি মোহান্তির। আট মাস জেলে কাটানোর পর ব্যাক্তিগত প্যারোলে অসুস্থ ঠাকুমাকে দেখতে যাওয়ার অনুমতি পায় বিট্টু মোহান্তি। কিন্তু তারপর থেকেই ফেরার ছিল সে। গত সপ্তাহের কেরালা থেকে গ্রেফতার করা হয় বিট্টিকে।
সূত্রে খবর, কেরালার যে ব্যাঙ্কে বিট্টি ভুয়ো নামে চাকরি করছিল সেখানকার কর্তৃপক্ষের কাছে একটি বেনামী চিঠি আসে। সেই চিঠিতে বিট্টির পরিচয় ফাঁস করা হয়েছিল। এই চিঠি পাওয়ার পর ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ বিট্টির বিরুদ্ধে স্থানীয় থানায় অভিযোগ দায়ের করে।
সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই তদন্ত করতে গিয়ে বিট্টির পরিচয় ফাঁস হয়ে যায়। পুলিসের তদন্তেই উঠে আসে হাতে লেখা যে চিঠিটি ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের কাছে এসেছিল সেটি পাঠিয়েছিল বিট্টিরই প্রাক্তন প্রেমিকা। ওই মহিলা আবার বিট্টির সহকর্মীও।
রাভব রাজন ছদ্মনামে গত নয় মাস ধরে বিট্টি মোহান্তি স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ত্রিবাঙ্কুরে প্রবেশনারি অফিসারের পদে চাকরি করছিল। পুলিস জানিয়েছে ধৃত ব্যক্তি যে বিট্টই সে বিষয়ে তারা সন্দিহান। যদিও আদালতে বিট্টির পরিচয় প্রমাণিত করার জন্য বৈজ্ঞানিক প্রমাণ পেশ করতে হবে। সেই কারণে দ্রুত বিট্টির বাবা বি বি মোহান্তির সঙ্গে বিট্টির ডিএনএ মিলিয়ে দেখা হবে বলেও পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে।



First Published: Tuesday, March 12, 2013 - 19:02


comments powered by Disqus