ছাত্র রাজনীতি নিয়ে প্রকাশ্যে তরজা রজনী-কমলের

কার্যত রজনীকান্তের এই মন্তব্যকে হাতিয়ার করেই তাঁর বিরুদ্ধে প্রচারে নামলেন কমল হাসান। বৃহস্পতিবার চেন্নাইয়ের এসএসএন ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কমল হাসান।

Updated: Mar 8, 2018, 05:07 PM IST
ছাত্র রাজনীতি নিয়ে প্রকাশ্যে তরজা রজনী-কমলের

নিজস্ব প্রতিবেদন : ছাত্র রাজনীতিকে হাতিয়ার করে এবার রজনীকান্তের বিরুদ্ধে জনমত গঠনে নামলেন কমল হাসান। রূপালী পর্দার জগতে দীর্ঘদিনের প্রতিদ্বন্দ্বী এই দুই সুপারস্টার এবার রাজনীতির মঞ্চেও বিরোধী পক্ষ।

মাঝে কিছুটা কাছাকাছি আসার সম্ভাবনা দেখা দিলেও, অল্প দিনের মধ্যেই তা মিলিয়ে যায়। রাজনীতির মঞ্চে এখন একে অপরের বিরুদ্ধেই লড়ছেন তাঁরা। প্রথমে দল গড়েন কমল হাসান। দলের নাম মাক্কাল নিধি মইয়াম(এমএনএম)। এরপর অল্পদিনের ব্যবধানে আলাদা দল গড়তে চলেছেন রজনীকান্ত। এই পরিস্থিতিতে ছাত্র রাজনীতি নিয়ে দুই যুযুধানের মধ্যে শুরু হয়েছে তরজা।

আরও পড়ুন- প্রধানমন্ত্রী কথা বলেননি, এনডিএ সরকার থেকে বেরিয়ে আসার পর দাবি চন্দ্রবাবুর

দিন তিনেক আগে চেন্নাইয়ের একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে তামিলনাডুর প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এমজি রাজচন্দ্রনের মূর্তি উন্মোচনে যান রজনীকান্ত। সেখানে তিনি বলেন, ছাত্রদের উচিত লেখাপড়ায় মন দেওয়া। রাজনীতি করা তাদের শোভা পায় না। তাঁর মন্তব্যকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যেই নিন্দার ঝড় উঠেছে তামিল রাজনীতিতে। একাধিক দলের নেতৃত্বদের বক্তব্য, ছাত্র রাজনীতির শক্তি সম্পর্কে ধারণা নেই রজনীকান্তের। তাই তিনি এই ধরনের মন্তব্য করছেন।

কার্যত রজনীকান্তের এই মন্তব্যকে হাতিয়ার করেই তাঁর বিরুদ্ধে প্রচারে নামলেন কমল হাসান। বৃহস্পতিবার চেন্নাইয়ের এসএসএন ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কমল হাসান। সেখানে তিনি বলেন, ''আমি চাই ছাত্র-ছাত্রীরা সক্রিয় রাজনীতিতে অংশ নিক।'' তাঁর কথায়, অনেক ক্ষেত্রেই ছাত্ররা এখন ভোটদান থেকে বিরত থাকছে। আর সে জন্যই আমরা পিছিয়ে পড়ছি। পড়ুয়াদের উদ্দেশে কমল হাসানের বক্তব্য, আমি চাই তোমরা এগিয়ে এসো। আমরা শুনবো তোমাদের কথা। তোমাদের সঙ্গ করেই গড়ে তুলব নতুন তামিলনাডু।

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close