বাতিল হল কিংফিশারের লাইসেন্স

Last Updated: Saturday, October 20, 2012 - 18:06

বেসরকারি বিমান পরিবহণ সংস্থা কিংফিশার এয়ারলাইন্সের লাইসেন্স সাসপেন্ড করল ডিরেক্টরেট জেনারেল অফ সিভিল অ্যাভিয়েশন বা ডিজিসিএ। দীর্ঘদিন যাবত আর্থিক সঙ্কটে থাকা কিংফিশার এয়ারলাইন্সকে আজকের মধ্যে কার্যকর আর্থিক পরিকল্পনা পেশ করতে বলেছিল ডিজিসিএ। কিন্তু, তা পেশ করতে ব্যর্থ হয়েছে কিংফিশার এয়ারলাইন্স। গত দশমাস ধরে একের পর এক উড়ান বাতিল এবং কর্মীদের বেতন দিতে পারছিল না বিমান পরিবহণ সংস্থাটি।
ক্ষতির পরিমাণ আটহাজার কোটি টাকা। তার ওপর প্রায় সাড়ে সাতহাহাজ কোটি টাকা ঋণের বোঝা। সবমিলিয়ে গত দশমাস ধরে চরম আর্থিক সঙ্কটে কিংফিশার এয়ারলাইন্স। পরিস্থিতি সামলাতে না পেরে প্রতিনিয়ত উড়ানের সংখ্যা কমাতে শুরু করে বিমান পরিবহণ সংস্থাটি। কিন্তু, তাতেও নিয়ন্ত্রণে আসেনি পরিস্থিতি। কোপ পড়ে কর্মীদের বেতনেও। একের পর এক উড়ান বাতিল হওয়ায় চরম সমস্যায় পড়েন যাত্রীরা। বারবার আলোচনাতেও বেরিয়ে আসেনি কোনও সমাধানসূত্র। এই পরিস্থিতিতে গত পাঁচই অক্টোবর কিংফিশারকে নোটিস দেয় ডিরেক্টরেট জেনারেল অফ সিভিল এভিয়েশন বা ডিজিসিএ। জানতে চাওয়া হয় এই চরম আর্থিক সঙ্কটের মধ্যে কেন সংস্থাটির লাইসেন্স বাতিল করা হবে না। একই সঙ্গে বিশে অক্টেবরের মধ্যে কিংফিশার এয়ারলাইন্সকে একটি কার্যকর আর্থিক পরিকল্পনাও পেশ করতে বলে ডিজিসিএ। কিন্তু, তাতেও ব্যর্থ হয়েছে কিংফিশার এয়ারলাইন্স। এরপরই লাইসেন্স সাসপেন্ডের সিদ্ধান্ত। ডিজিসিএ-র সিদ্ধান্তকে সঠিক বলে জানিয়েছেন এনডিএ আহ্বায়ক শরদ যাদব।
যতদিন না কিংফিশার এয়ারলাইন্স ডিজিসিএ-র কাছে সন্তোষজনক আর্থিক পরিকল্পনা পেশ করতে পারছে, ততদিন জারি থাকবে সাসপেনশন। দুহাজার তিন সালে এয়ার ডেকানকে লাইসেন্স দেয় ডিজিসিএ। পরবর্তীকালে এয়ার ডেকানকে কিনে নেয় কিংফিশার। কিন্তু, গত দুহাজার আট সাল থেকেই আর্থিক সঙ্কটের মুখে পড়ে বেসরকারি বিমান পরিবহণ সংস্থাটি।



First Published: Saturday, October 20, 2012 - 18:06


comments powered by Disqus