লাস্ট বয়কে হারিয়ে নাইটদের গম্ভীর হাসি

লাস্ট বয়কে হারিয়ে নাইটদের গম্ভীর হাসি

লাস্ট বয়কে হারিয়ে নাইটদের গম্ভীর হাসিঅবশেষে আর একটা জয়ের মুখ দেখল কলকাতা নাইট রাইডার্স। পেপসি আইপিএলের দুর্বলতম দল পুণে ওয়ারিয়র্সের বিরুদ্ধে গতকাল ৪৬ রানে সহজে জয় তুলে নিল শাহরুখের নাইটরা।

প্রথমে ব্যাট করতে নেমে পুনের দুর্বল বোলিং বাহিনীর বিরুদ্ধে কোনও রকমে ১৫০ রানের বাউন্ডারিটা টপকান গম্ভীর এন্ড কোম্পানি। অধিনায়কের হাফসেঞ্চুরি আর রায়ান টেন দুসখাতে ৩১ রানের সৌজন্যে পুণের বিরুদ্ধে মোটামুটি ভদ্রস্থ ১৫৩ রানের টার্গেট দেয় কলকাতা। যদিও আইপিএলের নিরিখে ১৫২রানের সীমাটা কোনও ব্যাপারই নয় তবুও পুনের বর্তমান হালত এতটাই সঙ্গিন ওই কটা রান করতেই হিমশিম খেল যুবরাজরা। মাত্র ১৯.৩ ওভারে ১০৬ রানেই গুটিয়ে যায় পুণের ইনিংস। যুবরাজ থেকে ফিঞ্চ, পুণের সবাই যেন ঠিকই করে ফেলেছেন এবারে আইপিএলে লিগ টেবিলে শেষ জায়গাটা ছেড়ে তাঁরা একপাও নড়বেন না।

কেকেআরের কালকের ম্যাচ জয়ের কৃতিত্বে পুণের রুটিন মাফিক অনন্য সাধারণ খারাপ পারফরমেন্স কতটা ভাগিদারী দাবি করে তা নিয়ে বিতর্ক বাড়িয়ে লাভ নেই। তবে কালকের ম্যাচ জয়েও যে কলকাতার ভাগ্যের ম্যাজিকাল পরিবর্তন ঘটছে না সেটা খোলা গলায় বলাই যায়। চেন্নাইতো সেই কবেই প্লেঅফে উঠে বসে আছে। গিলিদের হারিয়ে রাজস্থানও মোটামুটি শেষ চারে পৌঁছে গিয়েছে। বাকি পরে থাকা দু`টো জায়গার জন্য জোর লড়াই মুম্বই, হায়দরাবাদ আর বেঙ্গালুরুর মধ্যে। নাইট রাইডার্সদের এখনও ৩টে ম্যাচ খেলতে বাকি। তার মধ্যে একটিতে সহজ প্রতিপক্ষ পুণে থাকলেও বাকি দু`টোর একটাতে গেইলের বেঙ্গালুরু আর অন্যটায় এবারের আইপিএলের নয়া চমক সাইরাইজার্স হয়দরাবাদ। সুপারম্যান স্বয়ং নাইটদের হয়ে ব্যাট ধরে এই তিনটে ম্যাচেই যদি নাইটদের জয় ছিনিয়ে আনেন তাহলেও নাইটদের প্লেঅফে খেলার সম্ভাবনা অতি ক্ষীণ। তাহলে পুণেদের হারিয়ে নাইটদের এত উচ্ছ্বাসের কারণ কী? কী আবার, ওই ক্লাসের লাস্ট বয়ের থেকে অঙ্কে ২ নম্বর বেশি পেয়ে ক্লাসে শেষের থেকে তিন নম্বরের যে আত্মতৃপ্তি হয় সেটাই হল নাইটদের।






First Published: Friday, May 10, 2013, 14:28


comments powered by Disqus