নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে সরব বামেরা

নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে সরব বামেরা

নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে সরব বামেরারাজ্যে একের পর এক মহিলাদের আক্রান্ত হওয়ার ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে শনিবার রাস্তায় নামল বামেরা। বামেদের অভিযোগ, এক সময় অন্যান্য রাজ্যের তুলনায় এরাজ্যে মহিলারা অনেক বেশি নিরাপদ ছিলেন। কিন্তু গত দেড় বছরে নিরাপত্তা নিয়ে তাঁদের উদ্বেগ বেড়েছে। শনিবার রানি রাসমণী রোডে এক সমাবেশে বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু বলেন, "মহিলাদের ওপর অত্যাচার বাড়ছে। এর প্রতিবাদ করতে হবে সব দলগুলিকে।" এই পরিস্থিতিতে সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে বলে মন্তব্য করেন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু।

আজকের সভামঞ্চ থেকে বিমান বাবু মুখ্যমন্ত্রীর `সাজানো ঘটনা` তত্ত্বের কড়া নিন্দা করেছেন। অপরাধ দমনে পুলিস প্রশাসনও যথাযথ দ্বায়িত্ব পালন করেছে না বলে অভিযোগ করেন তিনি। এবিষয়ে মুখ্যমন্ত্রীর ব্যবস্থা নেওয়া উচিৎ বলে মন্তব্য করেছেন বিমান বসু। রাজ্যে গণতান্ত্রিক অধিকার খর্ব, তেহট্টে রাজনৈতিক দলগুলিকে যেতে বাধা দেওয়ার মতো ঘটনার বিরোধিতায় মুখর হন ফ্রন্ট চেয়ারম্যান। অরাজকতার বিরুদ্ধে সাধারণ মানুষকে রুখে দাঁড়ানোর দাক দেন বিমান বসু।

দীর্ঘ ৩৪ বছর পর রাজ্যের বিরোধী আসনে বামেরা।  বিভিন্ন ইস্যুতে বিরোধী বামেরা ব্যাপক আন্দোলন করবে এমনটাই মনে করা হয়েছিল, কিন্তু এখনও যে সেই কাজে বামেরা সফল নয়, আজ কার্যত স্বীকার করে নিলেন বিরোধী দলনেতা সূর্যকান্ত মিশ্র। মহিলাদের আক্রান্ত হওয়ার ঘটনায় রাস্তায় নামে বামেরা। রানি রাসমনি রোডে বামেদের সমাবেশে বিরোধী দলনেতা সূর্যকান্ত মিশ্র বলেন, মানুষের আস্থা ফিরে পেতে হলে বামেদের পথে নামতে হবে, তত্পরতার সঙ্গে প্রতিক্রিয়া জানাতে হবে। বামেদের অভিযোগ, রাজ্যে রাজনৈতিক পালাবদলের পর মহিলাদের আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা ৫০০'রও বেশি।

একের পর এক শ্লীলতাহানির ঘটনায় ৪ বছরের শিশু থেকে ৯০ বছরের বৃদ্ধা, বাদ যাননি কেউই। বিরোধীদের আরও অভিযোগ, সরকার নিরুত্তাপ থাকায় প্রশয় পাচ্ছে অপরাধীরা।  পুলিস প্রশাসন দৃষ্টান্তমূলক ভূমিকা না নেওয়ায় মহিলাদের ওপর আক্রমণের ঘটনা বেড়েই চলেছে। সাম্প্রতিককালে ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরোর তথ্য থেকেও প্রমাণিত যে রাজ্যে মহিলাদের ওপর আক্রমণের ঘটনা বাড়ছে। এরই প্রতিবাদে রানি রাসমণি রোডে এদিন সমাবেশের ডাক দিয়েছিল বামেরা।

পঞ্চায়েত নির্বাচনে রাজ্যে মহিলাদের আক্রান্ত হওয়ার ঘটনাকে সামনে রেখে বামেরা বড়সড় লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিতে চলেছে। সরকারের কাজে শুধুমাত্র মৌখিক সমালোচনা না করে রাস্তায় নেমে প্রতিবাদের ডাক দিল বিরোধী শিবির।

শনিবারের জনসভায় মুখ্যমন্ত্রীকে তোপ দাগেন সূর্যকান্ত মিশ্র। তাঁর অভিযোগ, শ্লীলতাহানির মত জঘন্যতম কাজ যাঁরা ঘটাচ্ছেন, তাঁদের শাস্তি দেওয়ার মত কোনও উদ্যোগ নিচ্ছে না সরকার। উল্টে মুখ্যমন্ত্রীর আচরণ প্রশ্রয় দিচ্ছে দুষ্কৃতীদের।

এর আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারকে কটাক্ষ করে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য বলেছিলেন, দুষ্কৃতীরা মনে করছে রাজ্যে তাদেরই সরকার এসেছে। শনিবার সেই সুরেই সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন বিরোধী দলনেতা। শনিবারের সমাবেশে বক্তব্য না রাখলেও উপস্থিত ছিলেন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য।






First Published: Saturday, November 17, 2012, 21:13


comments powered by Disqus