রুশদির ভিডিও কনফারেন্স ঘিরে বিক্ষোভ

রুশদি বিতর্ক পিছু ছাড়ছে জয়পুর সাহিত্য সম্মেলনের। এই বিতর্কে নবতম সংযোজন সলমন রুশদির ভিডিও কনফারেন্স। রুশদির ভিডিও কনফারেন্স প্রত্যাহারের দাবিতে জয়পুর সাহিত্য সম্মেলন চত্বরে শুরু হয়ে গিয়েছে বিক্ষোভ। আর প্রবল বিক্ষোভের জেরে রুশদির ভিডিও কনফারেন্স আদৌ হবে কি না, তা নিয়ে শুরু হয়েছে জল্পনা।

Updated: Jan 24, 2012, 03:50 PM IST

রুশদি বিতর্ক পিছু ছাড়ছে জয়পুর সাহিত্য সম্মেলনের। এই বিতর্কে নবতম সংযোজন সলমন রুশদির ভিডিও কনফারেন্স। আজ বিকেল ৩টে ৪৫ মিনিটে ভারতীয় বংশোদ্ভুত লেখক সলমন রুশদি লন্ডন থেকে ভিডিও কনফারেন্স করবেন বলে জানান জয়পুর সাহিত্য সম্মেলনের উদ্যোক্তারা। রুশদির ভিডিও কনফারেন্সের বিষয়ে রাজস্থান সরকারের থেকে সবুজ সঙ্কেত মিলেছে বলেও জানানো হয়। এদিন এক সাংবাদিক সম্মেলনে সাহিত্য সম্মেলনের প্রযোজক সঞ্জয় রায় জানান, রুশদির ভিডিও কনফারেন্সের অনুমোতি দিয়েছে রাজস্থান প্রশাসন। উদ্যোক্তাদের পক্ষ থেকেও আশ্বাস দেওয়া হয়েছে, ভিডিও কনফারেন্সে কোনও বিতর্কিত বিষয়ে আলোচনা হবে না। ভিডিও কনফারেন্স-এ রুশদি তাঁর বুকারজয়ী উপন্যাস, `মিডনাইটস চিলড্রেন` পাঠ করবেন।
কিন্তু সঞ্জয়বাবুর সাংবাদিক সম্মেলনের ২ ঘণ্টার মধ্যেই রুশদির ভিডিও কনফারেন্স প্রত্যাহারের দাবিতে জয়পুর সাহিত্য সম্মেলন চত্বরে শুরু হয়ে গিয়েছে বিক্ষোভ। আর প্রবল বিক্ষোভের জেরে রুশদির ভিডিও কনফারেন্স আদৌ হবে কি না, তা নিয়ে শুরু হয়েছে জল্পনা।
জয়পুর সাহিত্য সম্মেলনের প্রথম দিন থেকেই বিতর্কের শিরোনামে সলমন রুশদি। রাজস্থান পুলিস সূত্রে তাঁর কাছে খবর রয়েছে, মুম্বইয়ের অন্ধকার জগত তাঁকে মেরে ফেলার জন্য ভাড়াটে গুন্ডা ঠিক করেছে। নিরাপত্তার কারণেই তিনি সাহিত্য সম্মেলনে যোগ দিতে ভারতে যেতে পারছেন না বলে জানান রুশদি। নিরাপত্তার কারণে রুশদির সম্মেলনে যোগ না দেওয়ায় রাজস্থান সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে সাহিত্য সম্মেলনের মঞ্চে হরি কুঞ্জরু, অমিতাভ কুমার-সহ ৪ লেখকের রুশদির ভারতে নিষিদ্ধ বই `স্যাটানিক ভার্সেস` পাঠ বিতর্কে অনুঘটকের কাজ করে। ওই ৪ লেখক ও সম্মেলনের প্রযোজক সঞ্জয় রায়ের বিরুদ্ধে আইন-শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ দায়ের করা হয়।