সংখ্যারিষ্ঠতা পেলেও ম্যাজিক ফিগারে পৌছবে না এনডিএ, বলছে জনমত সমীক্ষা

Last Updated: Wednesday, February 5, 2014 - 23:05

লোকসভা ভোটের আর কয়েকমাস বাকি। আসতে শুরু করেছে বিভিন্ন জনমত সমীক্ষার ফলাফল। সব সমীক্ষাতেই বলা হচ্ছে, ভোটের পর সংখ্যাগরিষ্ঠ জোট হিসাবে আত্মপ্রকাশ করবে এনডিএ। কিন্তু, ম্যাজিক ফিগার দুশো বাহাত্তরে পৌছতে পারবে না তারা। এই পরিস্থিতিতে অ-কংগ্রেস অ-বিজেপি দলগুলির বিকল্প জোট গঠনের চেষ্টা ক্রমশ তাত্পর্যপূর্ণ হয়ে উঠছে। তৃতীয় ইউপিএ সরকার? নাকি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী? নাকি অ-কংগ্রেস অ-বিজেপি জোট দখল করবে দিল্লির মসনদ? লোকসভা নির্বাচনের আগে এই প্রশ্নই ঘুরপাক খাচ্ছে আম-জনতার মনে।

সিএনএন-আইবিএনের সমীক্ষা বলছে লোকসভা ভোটে 251 থেকে 231আসন পাবে এনডিএ।

192 থেকে 210 আসন পাবে বিজেপি।

ইউপিএ-র দখলে আসবে 107 থেকে 127 আসন।

92 থেকে 100 আসন পাবে কংগ্রেস।

হেডলাইনস টুডের সমীক্ষা আবার বলছে,

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে 188 পাবে এনডিএ।

৯১ আসন পাবে বিজেপি।

কংগ্রেস-বিজেপি বাদে অন্য দলগুলির ঝুলিতে যাবে 223 থেকে 233 আসন।

অ-কংগ্রেস অ-বিজেপি দলগুলি যে এ বার ভোটে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে চলেছে তা স্পষ্ট বিভিন্ন জনমত সমীক্ষায়।

বিভিন্ন সমীক্ষা বলছে, বৃহত্তম জোট হিসাবে আত্মপ্রকাশ করলেও ম্যাজিক ফিগার দুশো বাহাত্তরে পৌছতে পারবে না এনডিএ। অ-কংগ্রেস অ-বিজেপি দলগুলি বড় ফ্যাক্টর হতে পারে এমন রাজ্যের সংখ্যা অন্তত পক্ষে আট। এই আট রাজ্যে লোকসভা আসনের সংখ্যা 312। প্রাক-নির্বাচনী জনমত সমীক্ষা বলছে,

এ রাজ্যে 20 থেকে 28 আসন পেতে পারে তৃণমূল কংগ্রেস।

7 থেকে 13 আসন পেতে পারে বামেরা। 5 থেকে 9 আসন পেতে পারে কংগ্রেস। সর্বাধিক 2 আসন পেতে পারে বিজেপি।

মোদী হাওয়ায় উত্তরপ্রদেশে বিজেপি পেতে পারে 41 থেকে 49 আসন। 4 থেকে 10 আসন পেতে পারে কংগ্রেস। বহুজন সমাজ পার্টি 10 -16। সমাজবাদী পার্টি 8-14 আসন পেতে পারে বলে জানাচ্ছে জনমত সমীক্ষা।

বিহারে 16-24 বিজেপি। জেডিইউ পেতে পারে 7-13 আসন। 6-10 আসন পেতে পারে আরজেডি। সর্বাধিক 4 আসন পেতে পারে কংগ্রেস।

জনমত সমীক্ষা বলছে, ওড়িশায় 10-16 বিজেডি। 3-9 আসন পেতে পারে কংগ্রেস। সবচেয়ে বেশি 4 আসন পেতে পারে বিজেপি।

অন্ধ্রপ্রদেশে 10-19 আসন ওয়াইএসআর কংগ্রেস পেতে পারে বলে জানাচ্ছে জনমত সমীক্ষা। 9-15 আসন পেতে পারে টিডিপি। কংগ্রেস পেতে পারে 5-9 আসন। 4-8 আসন পেতে পারে টিআরএস।

কর্নাটকে 10-18 পেতে পারে কংগ্রেস। দক্ষিণের এই রাজ্যে বিজেপি পেতে পারে 6-10 আসন। 4-8 আসন পেতে পারে জনতা দল সেকুলার।

তামিলনাড়ুতে 15-13 পেতে পারে এডিএমকে। 7-13 আসন পেতে পারে ডিএমকে। কংগ্রেসের ঝুলিতে যেতে পারে 1-5 আসন।

জনমত সমীক্ষায় প্রকাশ, কেরলে 12-18 পেতে পারে ইউডিএফ। এলডিএফ পেতে পারে 2-8।

বামেদের নেতৃত্বে এই মুহূর্তে বিকল্প নীতির ভিত্তিতে এক ছাতার তলায় আসতে চাইছে ১৪টি রাজনৈতিক দল। এই মঞ্চে চার বাম দল ছাড়াও রয়েছে জেডিইউ, সমাজবাদী পার্টি, বিজেডি, জেডিএস, এডিএমকে, ঝাড়খণ্ড বিকাশ মোর্চা, অসম গণ পরিষদের মতো বিভিন্ন দল। পাশাপাশি, তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও ফেডারাল ফ্রন্টের ডাক দিয়েছেন।

কিছুদিন আগে ওয়াইএসআর কংগ্রেসের নেতা জগনমোহন রেড্ডি কলকাতায় এসে তাঁর সঙ্গে দেখা করে গেছেন। যদিও, বিকল্প জোট গড়ার প্রশ্নে এই মুহূর্তে তৃণমূলের থেকে কয়েক কদম এগিয়ে রয়েছে বামেরা। মায়াবতী, করুণানিধিরা আবার কোনও দিকেই না গিয়ে পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছেন। সব মিলিয়ে আগামী কয়েকমাসে জোট রাজনীতির অঙ্কে নানা চমক দেখা যেতে পারে। তবে, রাজনৈতিক মহলের ধারণা, ভোটের পর লোকসভা আসনের সংখ্যাই ঠিক করে দেবে জোটের আসল চেহারা।



First Published: Wednesday, February 5, 2014 - 23:05


comments powered by Disqus