পাঁচ মেয়েকে ধর্ষণ, গ্রেফতার বাবা, পাশে রয়েছেন মা

Last Updated: Wednesday, July 17, 2013 - 22:51

নিজের ৫ মেয়ে ও নাতনিকে লাগাতার ধর্ষণ করার অভিযোগে ৬৪ বছরের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করল পুলিস। ধৃত ব্যক্তির নাম বাবুলাল ধাকার। বুধবার ভরতপুরের বায়ান শহর থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিস। বাবুলালকে সমর্থন করার জন্য তার স্ত্রী শকুন্তলাকেও গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বায়ান পুলিশ স্টেশনের এসএইচও অশোক চৌহান। ধৃতদের ৩১ জুলাই পর্যন্ত আইনি হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছে স্থানীয় আদালত।
গত ২০ বছর ধরে নিজের ৫ মেয়েকে লাগাতার ধর্ষণ করার অভিযোগ রয়েছে বাবুলালের বিরুদ্ধে। রয়েছে ৩ বছরের নাতনিকে ধর্ষণের অভিযোগও। সোমবার বাবার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন মেয়েরা। কীভাবে বাবা তাঁদের ওপর শারীরিক নির্যাতন চালাত তার বিস্তারিত বিবরণ তাঁরা দিয়েছেন অভিযোগে। তাঁদের মাও বরাবরই বাবাকেই সমর্থন করে এসেছে বলেও জানিয়েছেন মেয়েরা। অভিযোগ, বয়ঃসন্ধির সময় থেকে শুরু করে বিয়ের পরও তাঁদের বাবার বিকৃত কামের শিকার হতে হয়েছে। বিয়ের আগে দুই মেয়ে বাবার দ্বারা গর্ভবতীও হয়ে পড়েছিলেন। পরে গর্ভপাত করান তাঁরা।
ভরতপুরের পুলিস সুপারিন্টেনডেন্ট অংশুমান ভোমিয়া জানান, এক মেয়ে বিয়ের মাত্র ১৫ দিন আগে গর্ভপাত করাতে বাধ্য হন। এমনকী, নিজেদের অপরাধ ঢাকতে মেয়েদের ও তাদের শ্বশিরবাড়ির ওপরও দোষ চাপিয়েছেন বাবুলাল-শকুন্তলা। তবে অভিযোগকারিনীদের পাশে থাকার জন্য তাঁদের স্বামীদের বাহবা দিয়েছেন ভোমিয়া।



First Published: Wednesday, July 17, 2013 - 22:51


comments powered by Disqus