কাল বাগানের ভাগ্যপরীক্ষা, টেনশনে কর্তারা

আজ বাগানের ভাগ্যপরীক্ষা

আজ বাগানের ভাগ্যপরীক্ষামোহনবাগানের নির্বাসন নিয়ে আজ ফেডারেশনের কর্মসমিতির বৈঠক। বৈঠকে যোগ দিতে সোমবার সকালে নয়াদিল্লি গেছেন মোহনবাগানের চার শীর্ষকর্তা। সভাপতি টুটু বসু, সচিব অঞ্জন মিত্র ও অর্থসচিব দেবাশিস দত্ত এদিন সকালেই রাজধানীর উদ্দেশ্যে রওনা দেন। নয়াদিল্লি পৌঁছে গিয়েছেন সহসচিব সৃঞ্জয় বসু। কলকাতা ছাড়ার আগে সভাপতির দাবি, ক্লাবের নির্বাসন তোলার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করবেন তাঁরা।

সোমবারই প্রাক্তন মোহনবাগান ফুটবলাররা সমর্থকদের গণস্বাক্ষরিত আবেদনপত্র তুলে দেন ফেডারেশন সচিব কুশল দাসের হাতে। দিল্লি পৌঁছে ফেডারেশন সভাপতি প্রফুল্ল প্যাটেলের সঙ্গে বৈঠক করেন মোহনবাগানের শীর্ষর্কতারা। প্রাক্তন ফুটবলার থেকে সমর্থকদের আশা বাংলার ফুটবলের কথা মাথায় রেখে মোহনবাগানকে নিয়ে ইতিবাচক চিন্তাভাবনা করবে ফেডারেশন।

অন্যদিকে, গতকাল মোহনবাগানের শীর্ষকর্তাদের অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ জানালেন সমর্থকরা। গোষ্ঠ পালের মূর্তির পাদদেশ থেকে শুরু হওয়া মিছিলের নেতৃত্ব দেন মোহনবাগানের কার্যকরী সমিতির সদস্য অতীন ঘোষ।

ওই দিনই মোহনবাগান সদস্যদের অপর একটি মিছিল সুবোধ মল্লিক স্কোয়ার থেকে শুরু হয়ে শেষ হয় গোষ্ঠপালের মূর্তির পাদদেশে। সমর্থকদের আশা ক্লাবের লক্ষ লক্ষ সমর্থকদের আবেগকে গুরুত্ব দিয়ে মোহনবাগানের উপর থেকে নির্বাসন তুলে নেবে ফেডারেশন।

এদিকে, কালকেও প্রথামাফিক অনুশীলন চলছে গঙ্গাপাড়ের ১২৪ বছরের বছরের পুরানো ক্লাবতাঁবুতে। কিন্তু টোলগে-ওডাফাদের মন পড়ে রয়েছে নয়াদিল্লিতে ভারতীয় ফুটবলের নীতিনির্ধারনকারী সদর দফতরে। আর কিছুক্ষণ পরেই তাঁদের ভবিষ্যত নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবেন বিচারক ফেডারেশন কর্তারা। কিন্তু কী হবে ফেডারেশনের সিদ্ধান্ত  সেই ভাবনায় ঘুম উড়ে গিয়েছে সবুজ-মেরুন ফুটবলারদের। গতকাল টোলগে-ওডাফা অনুশীলন শেষে বাড়ি ফেরার পথে পরিষ্কার জানিয়ে দিয়ে গেলেন,তাঁদের কথা বলার মত মানসিক অবস্থা নেই। আর বাকিদের মনের অবস্থা বোঝ গেল কোচ করিমের মন্তব্যে। আর কয়েক ঘণ্টা পরেই মোহনবাগানের ভাগ্যের ফলাফল ঘোষিত হতে চলেছে। সেই কয়েক ঘণ্টা উৎকণ্ঠার প্রহর গুনছেন মোহনবাগানের সদস্য, সমর্থক এবং ফুটবলাররা।













First Published: Tuesday, January 15, 2013, 09:19


comments powered by Disqus