পিতৃত্বের মামলায় পরাজিত তিওয়ারি

শেষ পর্যন্ত ডিএনএ পরীক্ষার রিপোর্ট মেনে নারায়ণদত্ত তিওয়ারিকেই রোহিত শেখরের জন্মদাতা পিতা(বায়োলজিক্যাল ফাদার) বলে মেনে নিল দিল্লি হাইকোর্ট। এ ব্যাপারে তিওয়ারি বক্তব্য খারিজ করে শুক্রবার আদালত দ্ব্যর্থহীন ভাষায় জানিয়ে দিয়েছে, উত্তরাখণ্ডের ৮৭ বছরের কংগ্রেস নেতাই উজ্জ্বলা শর্মার ছেলে রোহিতের বাবা।

Updated: Jul 28, 2012, 10:54 AM IST

শেষ পর্যন্ত ডিএনএ পরীক্ষার রিপোর্ট মেনে নারায়ণদত্ত তিওয়ারিকেই রোহিত শেখরের জন্মদাতা পিতা(বায়োলজিক্যাল ফাদার) বলে মেনে নিল দিল্লি হাইকোর্ট। এ ব্যাপারে তিওয়ারি বক্তব্য খারিজ করে শুক্রবার আদালত দ্ব্যর্থহীন ভাষায় জানিয়ে দিয়েছে, উত্তরাখণ্ডের ৮৭ বছরের কংগ্রেস নেতাই উজ্জ্বলা শর্মার ছেলে রোহিতের বাবা।
গত চার বছর ধরে ৩৩ বছরের রোহিত শেখরের দায়ের করা পিতৃত্বের মামলা নিয়ে বারেবারেই বিব্রত হতে হয়েছে তিওয়ারিকে। এক সময় নিজের বয়স এবং দীর্ঘ রাজনৈতিক অবদানের কথা তুলে ধরে ডিএনএ পরীক্ষা এড়ানোর আপ্রাণ চেষ্টা করেন তিনি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আদালতের কড়া নির্দেশে রক্তের নমুনা দিতে বাধ্য হন ৩ বার উত্তরপ্রদেশের এবং ১ বার উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্বে থাকা কংগ্রেসের এই প্রবীণ নেতা। প্রথম ইউপিএ সরকারের জমানায় অন্ধ্রপ্রদেশের রাজ্যপালও হয়েছিলেন তিওয়ারি। কিন্তু ২০০৯ সালে সে পর্বে ইতি পড়ে এক যৌন কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে। তিন মহিলার সঙ্গে রাজ্যপালের অশালীন ভিডিও প্রকাশ করে দেয় একটি চ্যানেল। প্রকাশ্যে ক্ষমা চান তিওয়ারি। এর পরই সুর পাল্টে দাবি করেন, `রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র` হয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। শুক্রবার জীবনের সবচেয়ে বড় অস্বস্তির মুখে পড়েও সেই ষড়যন্ত্রের তত্ত্বকেই সামনে রেখে আড়াল খুঁজেছেন তিওয়ারি।