মহারাষ্ট্রে এনসিপি-কংগ্রেস জোটে অশান্তির কালো মেঘ

পূর্বের ধাক্কা সামলে ওঠার আগেই আলোড়ন পশ্চিমে। পশ্চিমবঙ্গ ও কেন্দ্রে তৃণমূলের সঙ্গে জোট ভেঙে যাওয়ার পর এবার মহারাষ্ট্রেও কংগ্রেস-এনসিপি সম্পর্কে অশান্তির মেঘ। সেচ দুর্নীতি ইস্যুতে মঙ্গলবার ইস্তফা দিয়েছেন মহারাষ্ট্রের উপমুখ্যমন্ত্রী ও এনসিপি নেতা অজিত পওয়ার।

Updated: Sep 26, 2012, 09:02 AM IST

পূর্বের ধাক্কা সামলে ওঠার আগেই আলোড়ন পশ্চিমে। পশ্চিমবঙ্গ ও কেন্দ্রে তৃণমূলের সঙ্গে জোট ভেঙে যাওয়ার পর এবার মহারাষ্ট্রেও কংগ্রেস-এনসিপি সম্পর্কে অশান্তির মেঘ। সেচ দুর্নীতি ইস্যুতে মঙ্গলবার ইস্তফা দিয়েছেন মহারাষ্ট্রের উপমুখ্যমন্ত্রী ও এনসিপি নেতা অজিত পওয়ার। এর প্রভাব জোটে পড়বে না বলে এনসিপি-র তরফে দাবি করা হলেও, রাজনৈতিক মহলের একাংশের ধারনা মুখ্যমন্ত্রী পৃথ্বীরাজ চৌহানকে চাপে রাখতেই ইস্তফার সিদ্ধান্ত। ভবিষ্যত রণনীতি ঠিক করতে আজই বৈঠকে বসছে এনসিপি-র পরিষদীয় দল।  
অজিত পওয়ার জানিয়েছেন সেচ দুর্নীতি নিয়ে তিনি সিবিআই তদন্তের মুখোমুখি হতেও প্রস্তুত। একইসঙ্গে রাজ্যের সেচ প্রকল্প নিয়ে তৈরি শ্বেতপত্রটি দ্রুত প্রকাশ করার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছেন পওয়ার।
২০০৯ সালে বিদর্ভ সেচ উন্নয়ন কাউন্সিলের অনুমোদন ছাড়াই কুড়ি হাজার কোটি টাকার মোট আটত্রিশটি সেচ প্রকল্প পাশ করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তত্কালীন জলসম্পদ মন্ত্রী অজিত পওয়ারের বিরুদ্ধে। এনসিপি-র অভিযোগ, এই মিথ্যে প্রচারে মদত রয়েছে সহযোগীদেরও।
স্বভাবতই কংগ্রেসের অস্বস্তিতে খুশির হাওয়া বিজেপির অন্দর মহলে। তবে অজিত পওয়ারের ইস্তফা, মহারাষ্ট্রে কংগ্রেস-এনসিপি-র এগারো বছরের পুরোনো সম্পর্কে কোনও প্রভাব ফেলবে না বলেই মনে করা হচ্ছে। এনসিপি-র তরফেও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে জোট ভাঙছেন না তারা।