মোবাইল ফোন বিক্রি ও আমদানির ক্ষেত্রে আসছে নয়া বিকিরণ বিধি

মোবাইল ফোন বিক্রি ও আমদানির ক্ষেত্রে এবার থেকে মেনে চলতে হবে নয়া বিকিরণ বিধি। আজ থেকে জারি হচ্ছে নয়া এই নির্দেশিকা। নির্দেশিকায় প্রতিটি মোবাইল ফোন থেকে নির্গত বিকিরণের মাত্রা বেঁধে দিয়েছে কেন্দ্রীয় টেলিকম মন্ত্রক। বিক্রেতা ও আমদানিকারী কোম্পানিগুলিকে এবার থেকে নতুন এই বিধি মেনে চলতে হবে।

Updated: Sep 1, 2013, 07:47 PM IST

মোবাইল ফোন বিক্রি ও আমদানির ক্ষেত্রে এবার থেকে মেনে চলতে হবে নয়া বিকিরণ বিধি। আজ থেকে জারি হচ্ছে নয়া এই নির্দেশিকা। নির্দেশিকায় প্রতিটি মোবাইল ফোন থেকে নির্গত বিকিরণের মাত্রা বেঁধে দিয়েছে কেন্দ্রীয় টেলিকম মন্ত্রক। বিক্রেতা ও আমদানিকারী কোম্পানিগুলিকে এবার থেকে নতুন এই বিধি মেনে চলতে হবে।
মোবাইল ফোন ব্যবহারে বিশ্বের উন্নত দেশগুলির সঙ্গে পাল্লা দিচ্ছে ভারত। প্রতিদিনই বাড়ছে গ্রাহক সংখ্যা। কিন্তু, মোবাইল ফোন থেকে নির্গত বিকিরণ নিয়ে সচেতনতার অভাব রয়েছে বিক্রেতা থেকে গ্রাহক সকলের মধ্যেই। মোবাইল বিকিরণ থেকে ক্যানসারের মতো মারনব্যাধি ছড়ানোর আশঙ্কার কথা শুনিয়েছেন গবেষকরা। এবার তা নিয়ে কড়া ব্যবস্থা নিচ্ছে কেন্দ্রীয় টেলিকম মন্ত্রক। সেপ্টেম্বরের এক তারিখ থেকে মোবাইল ফোনের ক্ষেত্রে চালু হচ্ছে নয়া বিকিরণ বিধি। নতুন কোনও ফোন তৈরি বা আমদানি করার ক্ষেত্রে এই বিধি মেনে চলতে হবে ব্যবসায়ীদের। কী থাকছে নয়া বিধিতে?
টানা ছয় মিনিট মোবাইল ফোন ব্যবহার করলেও, মানব শরীরের প্রতিগ্রাম টিস্যুতে বিকিরণের প্রভাব কোনওভাবেই এক দশমিক ছয় ওয়াটের বেশি হবে না
 
মোবাইল ফোন থেকে কতটা বিকিরণ হচ্ছে, অর্থাত `সার` কত, তা সেটের গায়ে লিখে দিতে হবে
 
টেলিকম মন্ত্রকের নতুন এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছে ইন্ডিয়ান সেলুলার অ্যাসোসিয়েশন। তবে, ইতিমধ্যেই বাজারে মজুত স্টকের ওপর এই বিধি আরোপ হচ্ছে না। নতুন মোবাইল তৈরি ও আমদানির ক্ষেত্রে নয়া বিধি মেনে চলতে হবে বলে জানিয়েছে কেন্দ্র। আগামিদিনে পুরনো মোবাইল বাজেয়াপ্ত করার বিষয়েও চিন্তাভাবনা করছে ইন্ডিয়ান স্ট্যান্ডার্ড ব্যুরো।