সুরক্ষার স্বার্থে নতুন পদক্ষেপ দিল্লি পুলিসের

Last Updated: Friday, December 21, 2012 - 20:57

দিল্লি ধর্ষণ কাণ্ডে সারা দেশ এখন প্রতিবাদে উত্তাল। দেশের রাজধানীতে দিন দিন বেড়ে চলা নারী নির্যাতনের জন্য তীব্র সমালোচনার সম্মুখীন হচ্ছে রাজ্য সরকার তথা দিল্লি পুলিস। এর মাঝেই আজ দিল্লির পুলিস কমিশনার নীরজ কুমার এবং কেন্দ্রীয় সরাষ্ট্রসচিব আরকে সিং সমবেত সাংবাদিক সম্মেলনে করলেন। তাঁরা জানালেন শহরে সুরক্ষা ব্যবস্থা আরও মজবুত করে তোলার জন্য সরকারের তরফ থেকে কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।
পদক্ষেপ গুলি হল, ১.কোন যানবাহনই আর জানলায় ঘষা কাচ ব্যবহার করতে পারবে না। ইতিমধ্যেই দিল্লি পুলিস শতাধিক বাস এবং অনান্য গাড়ি চিহ্নিত করে জানলা থেকে ঘষা কাচ সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে।
২. পুলিসের তরফ থেকে সমস্ত ট্যাক্সি এবং অটো ড্রাইভারদের যাচাই হবে। ট্যাক্সি এবং অটো ড্রাইভারদের নির্দিষ্ট ব্যাজ পরতে হবে। যাতে বোঝা যায় তাদের কাছে গাড়ি চালানোর জন্য প্রয়োজনীয় অনুমতি আছে।
৩. যে সমস্ত চার্টাড বাস গুলি রাতে বেআইনি ভাবে যাত্রী পরিবহণ করে সেগুলিকে দ্রুত সনাক্ত করে বাজেয়াপ্ত করা হবে।
৪. যাত্রীবাহী সাধারণ বাস গুলির চালকদের নতুন করে পরীক্ষা দিতে হবে। তাদের লাইসেন্স দিল্লির কি না তাও খতিয়ে দেখা হবে।
৫. সাধারণ পোষাকের পুলিসরা সমস্ত যানবাহনের দিকে নজর রাখবেন। কোন চালক মদপ্য অথবা গাড়ি চালাতে অকারণ বিলম্ব করছেন কি না তার দিকে খেয়াল রাখবেন তাঁরা।
৬. সমস্ত সাধারণ পরিবহণ চালককে নিজেদের সঙ্গে সচিত্র পরিচয়পত্র এবং লাইসেন্স গাড়িতে ঝুলিয়ে রাখতে হবে।
৭. প্রত্যেকটি যানবাহনকে জিপিএসের আওতায় আনা হবে।
তবে পুলিসের এই পদক্ষেপ গুলি কতটা কার্যকর হবে তা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে। যে চলন্ত বাসটিতে মেয়েটিকে ধর্ষণ করা হয়েছিল সেই বাসটি ওই সময় ৩৪ টি পুলিস চেক পোস্টের উপর দিয়ে গিয়েছিল। বাসটির গায়েই লেখা ছিল সেটি একটি স্কুল বাস। ঘষা কাচের জানলায় টাঙানো ছিল পর্দা। দিল্লির বর্তমান আইনব্যবস্থায় এর প্রত্যেকটি বেআইনি। কিন্তু ওই চেকপোস্ট গুলির একটিতেও আটকানো হয়নি ওই বাসটিকে। নিরপত্তার স্বার্থে দিল্লি সরকারের নেওয়া নতুন পদক্ষেপগুলি কতটা কার্যকরী হবে ভবিষ্যতই তা বলে দেবে।



First Published: Friday, December 21, 2012 - 21:26


comments powered by Disqus