বিজেপিকে বিশ্বাসঘাতক বললেন নীতীশ কুমার

মোদীর পদোন্নতিতে জেডি(ইউ) কে হারাল বিজেপি। ১৭ বছরের সম্পর্কে পূর্ণচ্ছেদ। অথচ ২০০৩ সালে, গুজরাত দাঙ্গার ঠিক এক বছর পর নরেন্দ্র দামোদর দাস মোদীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছিলেন খোদ নীতীশ কুমার। আর আজ বিজেপির সঙ্গে গাঁটছড়া খোলার পরের সকালে ন`বছর আগের সেই প্রশংসার প্রশঙ্গে ফিরে গেলেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী। এ দিন তাঁর ব্যাখ্যা, "আমি তখন একটা সরকারি অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছিলাম। ফলে সেখানে দাঁড়িয়ে রাজনৈতিক বক্তব্য দেওয়া আমার পক্ষে সম্ভব ছিল না।"

Updated: Jun 17, 2013, 12:23 PM IST

মোদীর পদোন্নতিতে জেডি(ইউ) কে হারাল বিজেপি। ১৭ বছরের সম্পর্কে পূর্ণচ্ছেদ। অথচ ২০০৩ সালে, গুজরাত দাঙ্গার ঠিক এক বছর পর নরেন্দ্র দামোদর দাস মোদীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছিলেন খোদ নীতীশ কুমার। আজ সাংবাদিক সম্মেলনে বিহারের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ''আমরা বিশ্বাসঘাতকতা করেনি৷ আসলে বিজেপিই বিশ্বাসঘাতকতা করেছে৷ তারাই জেডিইউকে বিজেপির সঙ্গ ছাড়তে বাধ্য করেছে৷"
আজ বিজেপির সঙ্গে গাঁটছড়া খোলার পরের সকালে ন`বছর আগের সেই প্রশংসার প্রসঙ্গে ফিরে গেলেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী। এ দিন তাঁর ব্যাখ্যা, "আমি তখন একটা সরকারি অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছিলাম। ফলে সেখানে দাঁড়িয়ে রাজনৈতিক বক্তব্য দেওয়া আমার পক্ষে সম্ভব ছিল না।"
২০০৩ এর সেই অনুষ্ঠেনকেই ঢাল বানিয়েছে বিজেপি। রবিবার বিচ্ছেদের কিছুক্ষণের মধ্যেই সেই সরকারি অনুষ্ঠানে দেওয়া নীতীশের বক্তব্য সিডি আকারে প্রকাশ করে বিজেপি। যুক্তি যোদী মোদী প্রসঙ্গে জেডি(ইউ) এর আপত্তি থাকে, তবে কেন মোদীকে প্রশংসা করা হয়েছিল ২০০৩ সালে।
রবিবার নীতীশ কুমার ও তাঁর দল জনতা দল ইউনাইটেড জানিয়ে দেয়, মোদীকে নির্বাচনী প্রচারের শীর্ষে বসানোর জন্যই জোট ভাঙতে বাধ্য হল তাঁরা। আজ নীতীশ কুমার এও বলেন, "অটল-আডবাণীর জমানা শেষ। বিজেপি নতুন নেতৃত্বকে আমাদের পক্ষে মেনে নেওয়া সম্ভব নয়।"