জঙ্গিপুরে ভেঙ্গে যাওয়া জোটের পুনর্গঠনের আশা জিইয়ে রাখল কংগ্রেস-তৃণমূল

জঙ্গিপুরে ভেঙ্গে যাওয়া জোটের পুনর্গঠনের আশা জিইয়ে রাখল কংগ্রেস-তৃণমূল

জঙ্গিপুরে ভেঙ্গে যাওয়া জোটের পুনর্গঠনের আশা জিইয়ে রাখল কংগ্রেস-তৃণমূলজোট ভাঙার দিনই জঙ্গিপুর আসনের উপনির্বাচনে জোটবদ্ধ হল দুই দল। কংগ্রেসের বিরুদ্ধে প্রার্থী দিল না তৃণমূল। হাতে যথেষ্ট সময় থাকা সত্ত্বেও কেন প্রার্থী দিলেন না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছে জল্পনা।  একসঙ্গে পথ চলা আর সম্ভব নয়। তৃণমূলের বিরুদ্ধে একগুচ্ছ অভিযোগ তুলে সরকার থেকে বেরিয়ে এসেছে কংগ্রেস। ইস্তফা দিয়েছেন মন্ত্রীরাও। কিন্তু, তৃণমূলের সঙ্গে সম্পর্ক ছেদ করলেও জঙ্গিপুর আসনের জন্য তাদের সমর্থন চেয়েছিলেন প্রদীপ ভট্টাচার্য।

 সম্ভবত প্রদেশ কংগ্রেস নেতাদের এই আবেদনে সাড়া দিয়েই শেষপর্যন্ত জঙ্গিপুর আসনে প্রার্থী দিল না তৃণমূল। ফলে কংগ্রেস এবং তৃণমূলের জোটপ্রার্থী হিসেবেই বামেদের বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দিতা করছেন প্রণব মুখোপাধ্যায়ের পুত্র অভিজিত মুখোপাধ্যায়। কংগ্রেসের বিরুদ্ধে প্রার্থী না দেওয়া নিয়ে রীতিমত কটাক্ষের মুখে পড়তে হয়েছে তৃণমূলকে।

প্রদেশ কংগ্রেস নেতাদের যুক্তি, জঙ্গিপুর আসন নিয়ে যখন আলোচনা হয়েছিল তখন জোট ছিল, তাই প্রার্থী দেননি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

 কংগ্রেসের এই যুক্তি নিয়েও কিন্তু রাজনৈতিক মহলে প্রশ্ন উঠেছে। পাঁচ বছরই ইউপিএ সরকারের পাশে থাকার কথা তো বহুবার শোনা গেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গলায়। অন্যদিকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্ত্রিসভায় পাঁচ বছর তারা থাকবে এই স্লোগান সামনে রেখে নির্বাচন লড়েছিল কংগ্রেসও। সে সমস্ত চুক্তি ভেঙে খানখান হয়ে গেলেও শুধুমাত্র জোট গড়ে লড়ার চুক্তিটাই টিঁকে গেল এভাবে ? নাকি প্রণব মুখোপাধ্যায়কে কথা দেওয়ার কারণেই প্রার্থী দিল না তৃণমূল কংগ্রেস ? রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, দু হাজার চোদ্দর লোকসভা ভোটে জোট গড়ার মসৃণ পথটা আগে থেকেই করে রাখল দুই শিবিরই।

 

First Published: Sunday, September 23, 2012, 10:49


comments powered by Disqus