সোশ্যাল নেটওয়ার্কে গুজব, এখনও পালাচ্ছেন উত্তর-পূর্বের প্রবাসীরা

Last Updated: Saturday, August 18, 2012 - 19:22

সোশ্যাল নেট ওয়ার্কিং সাইটে অসম দাঙ্গার ভুয়ো খবরে রীতিমতো আতঙ্কিত উত্তর-পূর্বাঞ্চলের প্রবাসী বাসিন্দারা। এসএমএসের মাধ্যমে গুজব ছড়িয়ে পড়ায় বাড়ছে আতঙ্ক। এমনিতেই, গত কয়েক বছরে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে পোস্ট করা বিভিন্ন ছবি বা ভুয়ো খবরে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ার ঘটনা ব্যাপক ভাবে বেড়েছে। সেই একই মাধ্যমকে হাতিয়ার করা হচ্ছে এখানেও। সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে ছড়ানো গুজবের জেরে ইতিমধ্যেই আতঙ্কে ঘরমুখো হতে শুরু করেছেন বেঙ্গালুরু, পুনেতে বসবাস করা উত্তর-পূর্বাঞ্চলের বাসিন্দারা।
দোষীদের অবিলম্বে খুঁজে বের করে তাদের উপযুক্ত শাস্তি দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।গুজব ছড়িয়ে পরা রুখতে আগামী ১৫ দিন পর্যন্ত দিনে পাঁচটির বেশি এসএমএস পাঠানোয় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সরাষ্ট্র মন্ত্রক।
সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে পোস্ট করা বিভিন্ন মন্তব্য, ছবি থেকে এইভাবে উত্তেজনা তৈরি হওয়ার ঘটনা কিন্তু নতুন নয়। পরিসংখ্যান বলছে, ২০১০ সালের এপ্রিল থেকে ২০১১ জুলাইয়ের মধ্যে  শুধুমাত্র সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে দেওয়া আপত্তিকর মন্তব্য ও গুজবের জেরে ৩৩টি হিংসার ঘটনা ঘটে। গত বছর নভেম্বরেই এই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় ৫৭।  সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটের বিভিন্ন উত্তেজক মন্তব্য, বিশেষ করে ধর্ম, রাজনীতি, প্রতিরক্ষা সম্পর্কিত বিষয়কে ঘিরেই উত্তেজনার আঁচ ছড়িয়ে পড়তে দেখা গিয়েছে। তার সাম্প্রতিক উদাহরণ অসম দাঙ্গার প্রেক্ষিতে মুম্বইয়ের আজাদ ময়দানে প্রতিবাদ সভার ঘটনা। কিন্তু সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে যে ছবি দেওয়া হয়েছিল অসম ও মায়ানমারে দাঙ্গার ছবি বলে আদতে সেই ছবি গুজরাট দাঙ্গা ও চীনের ভূমিকম্পের বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুশাল কুমার শিন্দে।
সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট থেকে তৈরি হওয়া এই গুজব, উত্তেজনা ও তার থেকে হিংসা ছড়িয়ে পড়ার ঘটনার উদাহরণ রয়েছে বিদেশেও। ২০১২-র ৩০জুলাই উত্তর নাইজেরিয়ার কাদুনা শহরে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট ও টুইটারে ভুয়ো দাঙ্গার খবরে শহরে ব্যাপকভাবে আতঙ্ক তৈরি হয়। ২০১১-র ২৫ অগাস্ট মেক্সিকোর সবথেকে বড় শহর ভেরাক্রাজে একই রকমভাবে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে পোস্ট করা ভুয়ো খবরে উত্তেজনা ছড়ায়। পরের দিনই অভিযুক্তদের সন্ত্রাস ও নাশকতার অভিযোগে গ্রেফতার করে মেক্সিকো পুলিস।
কর্নাটক বা মহারাষ্ট্রে সোসাল নেটওয়ার্কিং সাইট থেকে ছড়িয়ে পড়া অসম দাঙ্গার ভুয়ো গুজবের খবরে এখন সেই আতঙ্ক নিয়েই দিন কাটাচ্ছেন উত্তর-পূর্বাঞ্চলের বহু প্রবাসী বাসিন্দা।



First Published: Saturday, August 18, 2012 - 19:49


comments powered by Disqus