আফজল গুরুর ফাঁসির নিন্দায় পাক প্রস্তাব অগ্রাহ্য লোকসভার

আফজল গুরুর ফাঁসির নিন্দায় পাক প্রস্তাব অগ্রাহ্য লোকসভার

 আফজল গুরুর ফাঁসির নিন্দায় পাক প্রস্তাব অগ্রাহ্য লোকসভারআফজল গুরুর ফাঁসির নিন্দা করে পাক আইনসভায় গৃহীত প্রস্তাব অগ্রাহ্য করল লোকসভা। শাসক-বিরোধী সব পক্ষের সর্বসম্মতিতে প্রস্তাবটি খারিজ হয়ে যায়। সংসদ হামলায় দোষী সাব্যস্ত আফজল গুরুর মৃত্যুদণ্ডের বিরোধিতা করায় পাকিস্তানের সঙ্গে আলোচনা বন্ধের দাবি জানিয়েছে বিজেপি। এ সবের মধ্যেই শ্রীনগরে সিআরপিএফ জওয়ানদের ওপর হামলার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে এক পাক নাগরিককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার, আফজল গুরুর ফাঁসির নিন্দা করে প্রস্তাব গ্রহণ করে পাক আইনসভার নিম্নকক্ষ ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি। শুক্রবার, এই প্রস্তাবটিকে খারিজ করে লোকসভায় একটি প্রস্তাব পেশ করেন অধ্যক্ষ মীরা কুমার।
 
আফজল গুরুর ফাঁসির নিন্দা করে ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করতে চাইছে পাকিস্তান। এর মাধ্যমে সংসদে জঙ্গি হামলার ঘটনাকেও সমর্থন করছে তারা। এমনই অভিযোগ করেছে বিজেপি। পাকিস্তান ইস্যুতে সংসদে প্রধানমন্ত্রী ও বিদেশমন্ত্রীর বিবৃতি দাবি করেছে তারা। পাকিস্তান ইস্যুতে সংসদে বিরোধীদের আলোচনার দাবি মেনে নেওয়ার কথা জানিয়েছে সরকার।
 
এ সবের মধ্যেই আফজল গুরুর দেহাবশেষ কাশ্মীরে তার পরিবারের হাতে তুলে দেওয়ার পক্ষে সওয়াল করেছেন সিপিআইএম পলিটব্যুরো সদস্য বৃন্দা কারাট। এ দিকে, শ্রীনগরের বেমিনায় সিআরপিএফ জওয়ানদের ওপর আত্মঘাতী হামলায় জড়িত সন্দেহে বৃহস্পতিবার এক পাক নাগরিককে গ্রেফতার করা হয়েছে। পাকিস্তানে ফোনকলের সূত্র ধরে ঘটনাস্থল থেকে এক কিলোমিটার দূরে ছত্তাবাল এলাকা থেকে তাকে ধরা হয়। ধরা পড়ার আগে সে নিরাপত্তাবাহিনীকে লক্ষ করে গুলি চালায় বলে সূত্রের খবর। আত্মঘাতী হামলায় নিহত জঙ্গিদের ডায়রি থেকে বশির আহমেদ মির নামে বারামুল্লা জেলার উরির এক বাসিন্দার ফোন নম্বর পাওয়া যায়। তাকে জেরা করেই মুলতানের বাসিন্দা জঙ্গি নেতা আবু তালিবের ঘনিষ্ঠ এই পাক জঙ্গিকে ছত্তাবাল এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

First Published: Friday, March 15, 2013, 19:19


comments powered by Disqus