মন্ত্রিত্বে কোপ বনশলের, মন্ত্রক চ্যুত অশ্বিনী কুমার

Last Updated: Friday, May 10, 2013 - 10:24

বিতর্কে জড়িত দুই কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর ভাগ্য নির্ধারণ করতে শনিবার জরুরী বৈঠকে বসতে চলেছে কংগ্রেস কোর কমিটি। সূত্রে খবর, সম্ভবত মন্ত্রিত্ব থেকে সরিয়ে ফেলা হবে রেল মন্ত্রী পবন কুমার বনশলকে। অন্যদিকে, মন্ত্রকে কোপ পড়লেও আইনমন্ত্রী অশ্বিনী কুমারকে সম্ভবত এখনই মন্ত্রী তকমা হারাতে হচ্ছে না। তবে তাঁকে সরিয়ে ফেলা হতে পারে অন্য মন্ত্রকে। কংগ্রেস সূত্রে খবর, অশ্বিনী কুমারের জায়গায় দলের কোনও অভিজ্ঞ নেতাকে কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রকের দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে।
কোল-গেট কাণ্ডে সিবিআইয়ের তদন্তকে প্রভাবিত করার অভিযোগে কয়লা কেলেঙ্কারির জেরে সিবিআই তদন্ত। আবার সেই তদন্তে সরকারি হস্তক্ষেপের জেরে আইনমন্ত্রককে ভর্ৎসনা সুপ্রিম কোর্টের। এঘটনার জেরে আইন মন্ত্রীর পদ থেকে অশ্বিনী কুমারের বিদায় কার্যত নিশ্চিত। সূত্রে খবর, অশ্বিনী কুমারকে একেবারে সরিয়ে ফেললে কোল কাণ্ডে সিবিআইয়ের তদন্তে হস্তক্ষেপ করার অভিযোগে সরাসরি বিরোধীদের গুলিগলা চলবে প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের বিরুদ্ধে। রাজনৈতিক মহলের মতে প্রধানমন্ত্রীর সামনে ঢাল হিসাবেই মন্ত্রীতে বহাল রাখা হবে অশ্বিনী কুমারকে। খুব দ্রুত কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রকে রদবদল হতে চলেছে বলে অনুমান করা হচ্ছে।
তবে এতটা ভাগ্য সহায় হচ্ছে না রেলমন্ত্রী পবন কুমার বনশলের। রেলওয়ে ঘুষ কাণ্ডে ভাগ্নের নাম জড়িয়ে যাওয়ার পর থেকেই বিরোধীরা লাগাতার তাঁর পদত্যাগের দাবি জানাচ্ছেন। ইতিমধ্যেই তদন্তে আভাস পাওয়া গেছে এই ঘুষ বিতর্কে জড়িত রেলমন্ত্রকের উচ্চপদস্থ একাধিক আধিকারিকরাও। রেলমন্ত্রীর নামেও চলছে জোড় ফিসফাস। এমনিতেও জোড়া বিতর্কে দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে ইউপিএ সরকারের। বিরোধীদের সঙ্গেই একই ইস্যুতে কংগ্রেসের বিরোধীতায় সোচ্চার হয়েছে বর্তমানএ সরকারের বড় ভরসা মুলায়মের দলও। সূত্রে খবর, এই রকম অবস্থায় তদন্তে কেঁচো খুঁড়তে কেউটে বেড় হওয়ার আগেই কংগ্রেস সুপ্রিমো চাইছেন পবন কুমার বনশলকে মন্ত্রিত্ব থেকেই সরিয়ে দিতে।
গতকাল সরকারের ক্যাবিনেট মিটিংয়ে অশ্বিনী কুমার উপস্থিত থাকলেও ছিলেন না রেলমন্ত্রী। এই ঘটনা পবন কুমার বনশলের মন্ত্রীত্ব থেকে পাকাপাকি অপসারণের জল্পনাকেই কয়েকশো গুণ বাড়িয়ে দিয়েছে।



First Published: Friday, May 10, 2013 - 10:24


comments powered by Disqus