‘ব্যাঙ্কই দায়ী, আমার ব্র্যান্ডের দফারফা হয়েছে, ঋণ শোধের আশা খুব কম’, সাফ জানালেন নীরব

পিএনবি থেকে ১১,৪০০ কোটি টাকা ঋণ করেছেন বলে দাবি করেছে ব্যাঙ্ক। কিন্তু নীরব মোদী দাবি অন্যরকম। তাঁর দাবি, মাত্র ৫০০০ কোটি টাকা পাবে ব্যাঙ্ক

Updated: Feb 20, 2018, 03:34 PM IST
‘ব্যাঙ্কই দায়ী, আমার ব্র্যান্ডের দফারফা হয়েছে, ঋণ শোধের আশা খুব কম’, সাফ জানালেন নীরব

নিজস্ব প্রতিবেদন: পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কে দুর্নীতির দায় ব্যাঙ্কের উপরেই চাপিয়ে দিলেন প্রখ্যাত হিরে ব্যবসায়ী নীরব মোদী। পিএনবিকে চিঠি লিখে নীরব দাবি করেছেন, ব্যাঙ্কের 'গোঁয়াড়তুমি'র জন্যই তিনি ঋণ শোধ করতে পারেননি। ব্যাঙ্কের পাওনাগন্ডা মিটিয়ে দেবেন বলে না কি আগেই কথা হয়েছিল ব্যাঙ্কের সঙ্গে। কিন্তু ব্যাঙ্কই তাঁকে পথে বসিয়েছে। 

পিএনবিকে লেখা একটি চিঠিতে নীরব মোদী দাবি করেছেন, গোটা বিষয়টি পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক ‌যেভাবে তাঁর উপর চাপিয়ে দিয়েছে তাতে মিডিয়ায় প্রবল হইচই শুরু হয়েছে। তাঁর বিভিন্ন সংস্থায় তদন্তরাকী সংস্থাগুলি তল্লাশি চালিয়েছে এবং চালাচ্ছে। এতে ফায়ারস্টার ইন্টারন্যাশানাল ও ফায়ারস্টার ডায়মন্ড ইন্টারন্যাশানাল এর ব্যবসা বন্ধ হওয়ার মুখে। এই অবস্থায় কোম্পানির ঋণ শোধ করা খুবই কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে।

আরও পড়ুন-বড়সড় ঘোষণা, নিয়োগ পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীদের বয়সের উর্ধ্বসীমা এক ধাক্কায় বাড়াল রেল

উল্লেখ্য, পিএনবি থেকে ১১,৪০০ কোটি টাকা ঋণ করেছেন বলে দাবি করেছে ব্যাঙ্ক। কিন্তু নীরব মোদীর দাবি অন্যরকম। তাঁর দাবি, মাত্র ৫০০০ কোটি টাকা পাবে ব্যাঙ্ক। নীরব লিখেছেন, ‘ব্যাঙ্ক ‌যে বকেয়া টাকার কথা বলছে, ঋণের পরিমাণ তার থেকে অনেক কম। ঋণের টাকা আদায়ের জন্য পিএনবি ‌যে পদক্ষেপ নিয়েছে তাতে আমার ব্র্যান্ড ও ব্যবসার প্রচুর ক্ষতি হয়েছে। এখন ঋণ শোধের ব্যাপারটি ব্যাঙ্কের উপরে নির্ভর করছে। দেশের বাজারে আমার ব্যবসার পরিমাণ বছরে ৬,৫০০ কোটি টাকা। এই বিশাল ব্যবসা থেকে ঋণ শোধ করা ‌যেত। কিন্তু এখন আর তা সম্ভব নয়। কারণ, আমার সব ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ করে দেওয়া হয়েছে।’
উল্লেখ্য, পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক থেকে ১১ হাজার কোটিরও বেশি টাকা ঋণ নিয়ে এখন দেশছাড়া হিরে ব্যবসায়ী নীরব মোদী ও তাঁর পরিবার।  

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close