মুম্বই গণধর্ষণকাণ্ডের বিচার ফাস্ট ট্রাক কোর্টে করার সিদ্ধান্ত পৃথ্বীরাজের

মুম্বইয়ে চিত্র সাংবাদিককে গণধর্ষণে অভিযুক্ত চতুর্থ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করল পুলিস। শনিবার রাতে কাসিম বাঙালি নামের সেই অভিযুক্তকে পুলিসি হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। চিত্র সাংবাদিককে গণধর্ষণে যে পাঁচজন অভিযুক্তর নাম উঠেছিল, কাসিমের তাদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি। অভিযোগ সেই চিত্র সাংবাদিককে দুবার `ধর্ষণ` করে কাসিম। পুরো ধর্ষণকাণ্ডের মূল পাণ্ডা এই কাসিমই বলে মনে করা হচ্ছে।

Updated: Aug 25, 2013, 10:03 AM IST

মুম্বইয়ে চিত্রসাংবাদিককে গণধর্ষণকাণ্ডে দোষীদের কড়া শাস্তির আশ্বাস দিলেন মুখ্যমন্ত্রী পৃথ্বীরাজ চৌহান। এই মামলার শুনানি ফাস্ট ট্রাক কোর্টে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মহারাষ্ট্র সরকার।
শুক্রবার যশলোক হাসপাতালে যান মুখ্যমন্ত্রী। চিকিৎসারত নির্যাতিতা চিত্রসাংবাদিকের পরিবারকে গোপনীয়তা বজায় রাখার আশ্বাস দেন। দোষীরা যাতে রেহাই না পায়, তার জন্য উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলা জানান তিনি।
এই ঘটনায় পাঁচ অভিযুক্তকেই গ্রেফতার করেছে পুলিস। রবিবার সকালে অভিযুক্ত সালিম আনসারিকে দিল্লি থেকে গ্রেফতার করল মুম্বই পুলিস। এর আগে শনিবার রাতে মুম্বইয়ে চিত্র সাংবাদিককে গণধর্ষণে অভিযুক্ত কাসিম বাঙ্গালি নামের অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছিল পুলিস।
চিত্রসাংবাদিককে গণধর্ষণে যে পাঁচজন অভিযুক্তর নাম উঠেছিল, কাসিমের তাদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি বয়স্ক। অভিযোগ সেই চিত্র সাংবাদিককে দুবার `ধর্ষণ` করে কাসিম। পুরো ধর্ষণকাণ্ডের মূল পাণ্ডা এই কাসিমই বলে মনে করা হচ্ছে।
মুম্বইয়ের লোয়ার প্যারেল এলাকায় মহালক্ষ্মী স্টেশনের কাছে শক্তি মিল নামে একটি পরিত্যক্ত জুটমিলে খবর সংগ্রহে গিয়েছিলেন ইংরেজি পত্রিকার শিক্ষানবিশ তরুণী সাংবাদিক। সেই সময়ই তাকে ঘিরে ধরে পাঁচ দুষ্কৃতী। গণধর্ষণ করা হয় তাঁকে। মুম্বইয়ের যশোলোক হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তরুণীকে। চিকিত্‍সকরা জানিয়েছেন তার দেহে একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। রয়েছে অভ্যন্তরীন একাধিক আঘাতও। তবে তরুণীর শারীরিক অবস্থা এখন স্থিতিশীল বলে জানিয়েছেন চিকিত্‍সকরা।