রাজ্যের বিরুদ্ধে সোনিয়ার দরবারে নালিশ প্রদীপের

জোট ভাঙার পর থেকেই সরাসরি রাজ্যসরকারের বিরোধিতায় প্রদেশ কংগ্রেস। আজ ফের একবার রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতির অভিযোগে তৃণমূলকে কাঠগড়ায় তুললেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি। দিল্লিতে সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে দেখা করে প্রদীপ ভট্টাচার্যের অভিযোগ, তৃণমূলের অন্তর্দ্বন্দ্বের জেরেই ভেঙে পড়েছে রাজ্যের সামগ্রিক আইনশৃঙ্খলা। পাশাপাশি পুলিসের ওপর রাজনৈতিক চাপসৃষ্টির অভিযোগও তুলেছেন তিনি।

Updated: Nov 28, 2012, 06:14 PM IST

জোট ভাঙার পর থেকেই সরাসরি রাজ্যসরকারের বিরোধিতায় প্রদেশ কংগ্রেস। আজ ফের একবার রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতির অভিযোগে তৃণমূলকে কাঠগড়ায় তুললেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি। দিল্লিতে সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে দেখা করে প্রদীপ ভট্টাচার্যের অভিযোগ, তৃণমূলের অন্তর্দ্বন্দ্বের জেরেই ভেঙে পড়েছে রাজ্যের সামগ্রিক আইনশৃঙ্খলা। পাশাপাশি পুলিসের ওপর রাজনৈতিক চাপসৃষ্টির অভিযোগও তুলেছেন তিনি।
ভেঙে গেছে রামধনু জোট। রাজ্য সরকার বিরোধী আন্দোলনকে জোরদার করতে এখন মরিয়া প্রদেশ কংগ্রেস। তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে আন্দোলনকে আরও জোরদার করতে নির্দেশ দিয়েছে এআইসিসিও। এবার দিল্লিতে বসেই রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে তোপ দাগলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি প্রদীপ ভট্টাচার্য।  তাঁর অভিযোগ, তৃণমূলের অন্তর্দ্বন্দ্বের জেরে অবনতি হচ্ছে রাজ্যের সামগ্রিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির।
 
পাশাপাশি এদিন পুলিসের কাজেও রাজনৈতিক হস্তক্ষেপের অভিযোগ এনেছেন প্রদেশ সভাপতি। তেহট্টে পুলিসের গুলিতে মৃত্যুর প্রসঙ্গ টেনে তাঁর অভিযোগ, রাজ্যের প্রতিটি জেলায় পুলিসের ওপর চাপ সৃষ্টি করছেন স্থানীয় তৃণমূল নেতারা।  
 
বুধবার দিল্লিতে কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে দেখা করে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে অভিযোগ জানিয়েছেন প্রদীপ ভট্টাচার্য। দিল্লির নির্দেশ মেনে ইতিমধ্যেই লালগড় এবং তেহট্টে চলোর ডাক দিয়েছে কংগ্রেস। এবার আইনশৃঙ্খলার অবনতির প্রতিবাদে আগামি ১৫ ডিসেম্বর থেকে ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত রাজ্যজুড়ে বিভিন্ন জেলায় আইন অমান্য কর্মসূচির ডাক দেওয়া হয়েছে  প্রদেশ কংগ্রেসের তরফে।