রেল বাজেট: রাজনৈতিক দলগুলির প্রতিক্রিয়া

Last Updated: Wednesday, March 14, 2012 - 18:24

প্রণব মুখার্জি (কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী): রেলমন্ত্রী যা ঘোষণা করেছেন, সব ক`টি প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে রেলের ক্ষমতা আরও বৃদ্ধি পাবে। রেলের অপারেটিং রেশিও ক্রমশ হ্রাস পাচ্ছে। রেলমন্ত্রী আমাকে তা ৯৮ শতাংশ থেকে ৮৫ শতাংশে নামিয়ে আনা হবে বলে জানিয়েছেন।
সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় (সংসদে তৃণমূলের মুখ্য সচেতক): দলীয় ভাবে তৃণমূল কংগ্রেস রেলের ভাড়াবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত সমর্থন করে না। ভাড়াবৃদ্ধির প্রস্তাব প্রত্যাহার করা উচিত। গরিব মানুষের স্বার্থ সুরক্ষিত রাখতে নীতিগত ভাবে কোনও আপোষ করবে না তৃণমূল কংগ্রেস।
প্রকাশ কারাট (সিপিআইএম সাধারণ সম্পাদক): ওদের মন্ত্রীই ভাড়া বাড়াচ্ছেন, আবার ওরাই বিরোধিতা করছে। এটা একরকমের দ্বিচারিতা।
লালু প্রসাদ যাদব (আরজেডি সুপ্রিমো): আশ্চর্যজনক ঘটনা। মূল্যবৃদ্ধিতে যখন দেশের মানুষ জেরবার, তখন এই বাজেট মানুষের ঊপর বোঝা বাড়াবে। এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে কি মমতা বন্দোপাধ্যায় `মা-মাটি-মানুষের` মতামত নিয়েছিলেন?
রবিশঙ্কর প্রসাদ (বিজেপি নেতা): এই সরকারের বাম হাত জানে না, ডান হাত কী করছে।
ডেরেক ও`ব্রায়েন (তৃণমূল সাংসদ): উচ্চশ্রেণিতে ভাড়াবৃদ্ধি তবুও গ্রহণযোগ্য; কিন্তু সমস্ত স্তরে ভাড়াবৃদ্ধি মেনে নিতে পারছি না। আমি দুঃখিত।
কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় (তৃণমূল সাংসদ): মন্ত্রগুপ্তির শপথ মেনে উনি দলের সঙ্গে কোনও কথা বলেননি। যে কোনও রকম ভাড়া বা কর বৃদ্ধির বিরুদ্ধে আমাদের দল। ওঁকে ভাড়াবৃদ্ধির প্রস্তাব প্রত্যাহার করতে বলেছি।



First Published: Wednesday, March 14, 2012 - 18:43


comments powered by Disqus