জেঠমালানির তোপের মুখে এবার জেটলি, সুষমারাও

শোকজ নোটিস পাওয়ার পর আরও আক্রমণাত্মক হয়ে উঠেলন রাম জেঠমালানি। নিতিন গড়করির পর এবার রাম জেঠমালানির রোষানলে এবার সুষমা স্বরাজ, অরুণ জেঠলি। সোমবার বিজেপি সভাপতিকে তিনি একটি চিঠি লেখেন। চিঠিটিতে এই বর্ষীয়ান রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব সিবিআই ডিরেক্টর নিয়োগ প্রক্রিয়ায় এই দুই বিজেপি নেতার ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। মঙ্গলবার চিঠিটির কথা প্রকাশ্যে এলে এই নিয়ে তৎক্ষণাৎ বিতর্ক শুরু হয়।

Updated: Nov 27, 2012, 07:08 PM IST

শোকজ নোটিস পাওয়ার পর আরও আক্রমণাত্মক হয়ে উঠেলন রাম জেঠমালানি। নিতিন গড়করির পর এবার রাম জেঠমালানির রোষানলে এবার সুষমা স্বরাজ, অরুণ জেঠলি। সোমবার বিজেপি সভাপতিকে তিনি একটি চিঠি লেখেন। চিঠিটিতে এই বর্ষীয়ান রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব সিবিআই ডিরেক্টর নিয়োগ প্রক্রিয়ায় এই দুই বিজেপি নেতার ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। মঙ্গলবার চিঠিটির কথা প্রকাশ্যে এলে এই নিয়ে তৎক্ষণাৎ বিতর্ক শুরু হয়।
শনিবার সুষমা স্বরাজ আর অরুণ জেঠলি প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংকে সিবিআই ডিরেক্টর নিয়োগ সংক্রান্ত একটি চিঠি লেখেন। এই চিঠিতে সিবিআই কর্তা নিয়োগের পদ্ধতিটি তাঁরা কোলেজিয়ামের মাধ্যমে সেরে নেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী কে অনুরোধ জানান। জেঠমালানি জানিয়েছেন অধুনা নিযুক্ত সিবিআই কর্তা প্রাক্তন আইপিএস অফিসার রনজিৎ সিনহার প্রতিদ্বন্দ্বী নিরজ কুমার অরুণ জেঠলির জুনিয়র ছিলেন। অবশ্য গড়করিকে লেখা তাঁর এই চিঠিতে জেঠমালানি বিজেপি সভাপতিকেও সমান ভাবে আক্রমণ করেছেন। তিনি পরিষ্কার লিখেছেন গড়করি নিজের সঙ্গে দলকেও আত্মহত্যার পথে টেনে নিয়ে যাচ্ছেন।
প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই সভাপতির পদ থেকে নিতিন গড়করির অপসারণ চেয়ে তোপ দেগে ছিলেন জেঠমালানি। তৈরি হয়েছিল বিতর্ক। সেই বিতর্কের রেশ আজও সমান ভাবেই জীবিত। রবিবারই বিজেপির তরফ থেকে এই রাজ্যসভার সাংসদকে বহিষ্কার করা হয়। গত কালই জেঠমালানিকে শোকজের নোটিশও ধরায় দল। এই নোটিশে তাঁকে বলা হয় কেন আগামী ৬ বছরের জন্য তাঁকে দল থেকে বহিষ্কার করা হবে না তার কারণ দর্শানোর জন্য।