১৫ মাসে তিনটি আত্মহত্যা তিহারে

এই নিয়ে গত ১৫ মাসে তিনটি আত্মহত্যার ঘটনা ঘটল দেশের হাই সিকিউরিটির তিহার জেলে। সোমবার সকালে দিল্লি গণধর্ষণকাণ্ডের মূল অভিযুক্ত রাম সিংয়ের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করে জেল কর্তৃপক্ষ। তিহারে এখন মোট কয়েদির সংখ্যা ১২ হাজার। ফলে প্রশ্ন উঠেছে জেলের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে।

Updated: Mar 11, 2013, 06:10 PM IST

এই নিয়ে গত ১৫ মাসে তিনটি আত্মহত্যার ঘটনা ঘটল দেশের হাই সিকিউরিটির তিহার জেলে। সোমবার সকালে দিল্লি গণধর্ষণকাণ্ডের মূল অভিযুক্ত রাম সিংয়ের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করে জেল কর্তৃপক্ষ। তিহারে এখন মোট কয়েদির সংখ্যা ১২ হাজার। ফলে প্রশ্ন উঠেছে জেলের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে।
জেল অধিকারিকরা জানিয়েছেন, জেলের মধ্যেই আত্মহত্যা করেন দিল্লি গণধর্ষণকাণ্ডের মূল অভিযুক্ত রাম সিং। আজ সকালে তিহার জেলের কর্মীরা তিন নম্বর সেলে ঝুলন্ত অবস্থায় তার দেহ উদ্ধার করে। গরাদের গ্রিল থেকে ফাঁস লাগানো অবস্থায় দেহটি উদ্ধার হয়। রাম সিংয়ের দেহ ময়নাতদন্তের জন্য এআইএমএস হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
২০১২ থেকে এখনও পর্যন্ত তিহারে ১৮ জন বন্দির মৃত্যু হয়েছে। যার মধ্যে তিনটি আত্মহত্যার ঘটনা। জেলের ডিরেক্টর জেনারেল বিমল মেহরা একথা জানিয়েছেন। দু`জনের মৃত্যু হয় গত বছরই। জেলের এক উচ্চপদস্থ আধিকারিকের মতে রাম সিংয়ের মৃত্যু এই বছরের প্রথম অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনা। তিনি আরও জানিয়েছেন, প্রতিটি ঘটনায় ম্যজিস্ট্রেট পর্যায়ের তদন্ত হয়।
তিহার দেশের সবচেয়ে বড় সংশোধনাগার যেখানে একসাথে ১৫ হাজার বন্দিকে রাখার ব্যবস্থা রয়েছে। তিহারে ত্রিস্তরিয় নিরাপত্তা বলয় থাকা স্বত্বেও কীভাবে গত ১৫ মাসে ৩টি আত্মহত্যার ঘটনা ঘটল, তানিয়ে উঠছে প্রশ্ন।