জীবনযুদ্ধে হেরে দেশে ফিরল সরবজিতের নিথর দেহ

Last Updated: Thursday, May 2, 2013 - 08:28

সরবজিতের মৃত্যুর পর থেকে ক্ষোভে ফুটছে দেশ, ভারত-পাক সম্পর্ক অবনতির ইঙ্গিত, টাইম-লাইন
সরবজিতের দেহ তাঁর গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হবে। কাল অন্তেষ্টি ক্রিয়া সম্পন্ন হবে।
রাত ৮টা- দেশে ফিরল সরবজিত্‍ সিংয়ের মৃতদেহ। রাত আটটা নাগদ অমৃতসর বিমানবন্দরে নামানো হল সরবজিতের নিথর দেহ।
সন্ধ্যা ৭.২৫টা-- বিশেষ বিমান এয়ারবাস ৩১৯-এ ফিরছে সরবজিতের দেহ। লাহোর বিমানবন্দর থেকে ছাড়ল এই বিমান।
৬.৩০টা-- সব জটিলতা কেটে গেল। সরবজিতের দেহ লাহোর বিমানবন্দরের দিকে রওনা দিল। ওখানে অপেক্ষা করছে বিশেষ বিমান। কিছুক্ষণ পরেই ভারতের উদ্দেশ্যে এই বিমান রওনা দেবে।

৬টা- কিছু নথির সমস্যার কারণে আটকে গেল সরবজিতের দেহ দেশে ফেরত আনার প্রক্রিয়া।
৫.৫৫টা-- শুক্রবার ভারতে সরবজিতের দেহের ময়নাতদন্ত হবে। আজ সরবজিতের দেহ প্রথমবার ময়নাতদন্তে হয় লাহোর হাসপাতালে।
৪টে ৩৬: লাহোরের হাসপাতালে সরবজিতের দেহ ভারতীয় আধিকারিকদের হাতে তুলে দেওয়া হল।
৪টে ২৭: পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের পক্ষ থেকে পাকিস্তানের রাজ্যে বন্দী ভারতীয়দের জন্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা আঁটোসাটো করার আদেশ দেওয়া হল।
৪টে ১২: সঈদ আকবারুদ্দিন জানালেন চলতি বছরের জানুয়ারি অবধি পাওয়া তথ্য অনুযায়ী পাকিস্তানের জেলে ২১৫জন ভারতীয় মৎস্যজীবী ও ৫৫জন অনান্য ভারতীয় নাগরিক বন্দী আছেন।
৪টে ১০: সরবজিত দোষী হলে ভারত কখনই তাঁর মুক্তির আবেদন করত না। মন্তব্য আকবারুদ্দিনের।
৪টে ৮: আমরা জানি না কখন সরবজিতের ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আমাদের হাতে আসবে। জানালেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের মুখপাত্র সঈদ আকবারুদ্দিন।
৪টে ৬:  পাকিস্তানে ভারতীয় হাই কমিশনের দু'জন আধিকারিক ওই বিমানে সরবজিতের দেহ নিয়ে ফিরে আসবেন। কিন্তু কখন বিমানটি ভারতে আসবে সে বিষয়ে নির্দিষ্ট কিছু বলতে পারবেন না জানালেন তিনি।
৪টে ৫: বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র সাংবাদিকদের জানালেন বিকেল ৩টে ৪৬-এ এয়ার ইন্ডিয়ার বিশেষ বিমান লাহোরের উদ্দেশে রওনা দিয়েছে।
৪টে ৫:  সরবজিতের দিদি পাকিস্তানের মানবাধিকার কর্মীর বিরুদ্ধে ২৫ কোটি টাকার বিনিময়ে সরবজিতকে মুক্তি পাইয়ে দেওয়ার যে অভিযোগ এনেছিলেন তার তীব্র প্রতিক্রিয়া জানালেন ওই মানবাধিকার কর্মী। জানালেন ''এত দিন ধরে মানবাধিকারের খাতিরে ভারতীয় বন্দীদের হয়ে লড়াই করার এটাই কি পুরষ্কার?''
৩টে ১৫: প্রধানমন্ত্রী ত্রাণ তহবিলের পক্ষ থেকে সরবজিতের পরিবারকে ২৫ লাখ টাকা সাহায্যের ঘোষণা করা হল।
৩টে ৫: সূত্রের খবর সরবজিত সিংয়ের দেহ আজ সন্ধেতে ভারতে নিয়ে আসা হবে। সরবজিতের শেষকৃত্য কাল, শুক্রবার বেলা ২টোর সময় তাঁর গ্রামে সম্পন্ন হবে।
৩টে: পাকিস্তানি মেডিকেল বোর্ড সরবজিতের দেহের ময়নাতদন্ত শেষ হল।
২. ৪০: ভারতের বিদেশ সচিব পাক বিদেশ সচিবের সঙ্গে কথা বললেন। সরবজিতের দেহ দ্রুত ভারতের হাতে ফেরত দেওয়ার প্রক্রিয়ায় জোর দিতে বলেন।
২.১০টা: ময়নাতদন্তের জন্য লাহোরের হাসপাতালে সরবজিতের দেহ এমার্জেন্সি ওয়ার্ডে নিয়ে আসা হল।
বেলা ২টো: দিল্লি প্রধানমন্ত্রী শীলা দীক্ষিত বললেন, সরবজিতের মৃত্যু দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা।
১টা ৫৫: লোকসভায় সরবজিতের মৃত্যু নিয়ে নিন্দা প্রস্তাব আনা হয়েছে বলে জানা সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী কমল নাথ। পাকিস্তানের আসল চেহারাটা এই ঘটনার সূত্র ধরে সামনে চলে এসেছে বলে মন্তব্য তাঁর। বিদেশমন্ত্রীই এরপর ভারত কী পদক্ষেপ নিতে চলেছে তা জানাবেন বলে জানিয়েছেন কমলনাথ।
১টা ৪০: সরবজিতের মৃত্যু ইউপিএ সরকারের কূটনীতির বিফলতা। পাকিস্তানের জেলে অনান্য ভারতীয় বন্দীদের সুরক্ষা নিয়ে এখনই উদ্যোগ নেওয়া উচিত কেন্দ্রীয় সরকারের। মন্তব্য বিজেপি সভাপতি রাজনাথ সিংয়ের।
১টা ১৫: ফেসবুকে সরবজিতের মৃত্যু নিয়ে শোকপ্রকাশ পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করে ''ব্যাড হ্যান্ডলিং''-এর অভিযোগ আনলেন তিনি।
১২টা ৫০: সূত্রের খবর আজ বেলা দেড়টা নাগাদ সরবজিতের দেহ ভারতে পৌঁছবে। সরবজিতের গ্রামে কড়া নিরাপত্তা জারি করা হয়েছে।
১২টা ৪০: সরবজিতের মৃত্যু নিয়ে বিচারবিভাগীয় তদন্তের আদেশ দিলেন পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের কেয়ারটেকার মুখ্যমন্ত্রী নাজাম সেঠি।
১২টা ৩৫: কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ফারুক আবদুল্লাহ সরবজিতের দেহ পাকিস্তান ভারতে ফেরত দেবে কী না সেই বিষয়ে সন্দেহ প্রকাশ করলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ফারুক আবদুল্লাহ।
১২টা ১০: পাকিস্তানের বিচার ব্যবস্থাই খুন করেছেন সরবজিতের। মন্তব্য নরেন্দ্র সিং মোদীর।
১১টা ১৬: প্রত্যেক ভারতীয়ের এখন একটাই প্রশ্ন। ভারত পাকিস্তানকে এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে কী বার্তা দেবে। মন্তব্য বিজেপি নেত্রী স্মৃতি ইরানির।
১১টা১৫: কংগ্রেস সহসভাপতি রাহুল গান্ধী দিল্লিতে সরবজিতের পরিবারের সঙ্গে দেখা করলেন
১১টা ০৫: এসএডি সাংসদ হরসিমরাত কাউর জানালেন পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন সরবজিতকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদা দেওয়া হপবে। তাঁর দুই কন্যা চাকরি পাবেন বলেও জানআলেন তিনি।
১১টা: কেন্দ্রীয় বিদেশমন্ত্রী সলমন খুরশিদ জানালেন সরবজিতের মৃত্যু ভারত-পাকিস্তান সম্পর্কে আঘাত হানল। খুরশিদ জানালেন সরবজিতের মৃত্যু নিয়ে সরকার সংসদে বিবৃতি প্রকাশ করবে।
১০টা ৪৫: সমস্ত নিয়মকানুন শেষ করেই সরবজিতের মৃত দেহ ভারতীয় হাইকমিশনের হাতে তুলে দেওয়া হবে বলে জানাল পাকিস্তানের বিদেশ মন্ত্রক।
১০টা ৪৫: জিন্না হাসপাতালের সেরা এবং ঐকান্তিক প্রচেষ্টা সত্বেও সরবজিতকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি। মন্তব্য পাক বিদেশ মন্ত্রকের।
১০টা ৪০: 'নিষ্পাপ সরবজিতকে হত্যা করেছেন পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আসিফ আলি জারদারি।' 'জারদারি একজন ভারতীয়কে হত্যা করেছেন।' 'সরবজিতে শহীদ।' মন্তব্য করলেন সরবজিতের বোন দলবির কাউর।
১০টা ৩৩: এই ঘটনা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক। পাকিস্তান আবার তার আসল রঙ দেখাল। মন্তব্য সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী কমলনাথের।
১০টা ১৫: একজন ভারতীয়কে ঠাণ্ডা মাথায় হত্যা করা হল পাকিস্তানে। এই ঘটনা বর্বরোচিত এবং অমানবিক। কোনও সভ্যদেশ তাদের বন্দীদের সঙ্গে এই ধরনের আচরণ করে না। পাকিস্তানকে এই ঘটনার জবাবদিহি করতে হবে। মন্তব্য কংগ্রেসের মণীশ তেওয়ারির।
১০টা ৫: সরবজিতের মৃত্যু হয়েনি। তাঁকে হত্যা করা হয়েছে। পাকিস্তানে কোনও রকম আইন নেই। নেই মানবাধিকার। ভারতের সরকারও ইসলামাবাদের উপর চাপ বাড়িয়ে সরবজিতকে রক্ষা করতে ব্যর্থ। মন্তব্য বিজেপির মীনাক্ষী লেখির।
১০টা: সরবজিত অপরাধী ছিলেন না। তাঁকে মানবিকতার খাতিরেও মুক্তি দেওয়া হল না। পুরো ঘটনাতেই ষড়যন্ত্রের আভাস স্পষ্ট। জানালেন এসজিপিসি প্রেসিডেন্ট অবতার সিং মাক্কার।
৯টা ৫৫: কংগ্রেসের রশিদ আলভি জানালেন এই ঘটনার জন্য পাকিস্তান সম্পূর্ণ দায়ী। তিনি সরবজিতের মৃত্যুকে হত্যা বলে দাবি করলেন।
৯টা ৪৫: সরবজিতের শহর পাঞ্জাবের ভিখিউইন্ড প্রতিবাদে উত্তাল।
৯টা ১৫:  সরবজিতের দেহ ফিরিয়ে আনার জন্য পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার কথা ঘোষণা ভারতীয় হাই কমিশনার শরত শাভারওয়ালের।
৯টা ১০: সম্ভবত বিশেষ হেলিকপ্টারে সরবজিতের দেহ ফিরিয়ে আনা হবে ভারতে।
৮টা ৪৫: চার সদস্যের মেডিক্যাল দল সরবজিতের দেহের ময়নাতদন্ত করবেন।
৮টা ৩৫: ''সরবজিতের মৃত্যু আসলে পাকিস্তানের জেল হাজতে আমাদের নাগরিকের হত্যা'', ভারতের বিদেশ মন্ত্রকের সূত্রে মন্তব্য।
৮টা ৩০: সরবজিতের পরিবারের স্নগে সাক্ষাৎ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুশীলকুমার শিন্ডে। পরিবারকে আশ্বাস দিলেন সরবজিতের দেহ ফিরিয়ে আনার সবরকম চেষ্টা করবেন কেন্দ্র।
৮টা ১০: বিজেপির মুখতার আব্বাস নকভি মন্তব্য করলেন সরবজিতের মৃত্যু সারা দেশের ক্ষোভ সঞ্চার করেছে।
৮টা: পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী প্রকাশ সিং বাদল সরবজিতের মৃত্যুর স্বাধীন তদন্ত দাবি করলেন। রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সরবজিতের শেষকৃত্য সম্পন্নের প্রতিশ্রুতি।
৭টা ৫০: সরবজিতের উপর বর্বরোচিত হামলার জন্য দায়ীদের উপযুক্ত শাস্তি দাবি করলেন প্রধানমন্ত্রী।
৭টা ৫০:  ভারতের আবেদনে সারা দিয়ে সরবজিতের বিষয়টি মানবতার সঙ্গে বিচার করেনি পাকিস্তান। অভিযোগ প্রধানমন্ত্রীর।
সকাল ৭টা ৫০: সরবজিতের মৃত্যুতে গভীর শোকপ্রকাশ করলেন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং।
ভোর ৩টে ৩০: সরবজিতকে শহীদের মর্যাদা দেওয়ার দাবি জানাল তাঁর পরিবার।
২টো: পাকিস্তানের সময় রাত একটার মৃত্যু হয়েছে সরবজিতের। ঘোষণা পাক মেডিক্যাল বোর্ডের
রাত ১টা ৫৫: সরকারি ভাবে সরবজিতের মৃত্যুর  কথা ঘোষণা করল পাকিস্তান।
রাত ১টা ৫০: সরবজিতের মৃত্যু হয়েছে। জানাল পাকিস্তানি টিভি চ্যানেল। কোনও সরকারী ঘোষণা নেই।

লড়াই শেষ। নৃশংসতার কাছে শেষ পর্যন্ত হার মানলেন সরবজিত্ সিং। ভারতীয় সময় রাত দেড়টা নাগাদ লাহোরের জিন্না হাসপাতালে মৃত্যু হয় সরবজিত্ সিংয়ের। তাঁর দেহ জিন্না হাসপাতালের মর্গে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য তৈরি হয়েছে বিশেষ মেডিক্যাল টিম। সরবজিত সিংয়ের দেহ তাঁদের হাতে তুলে দেওয়ার দাবি জানিয়েছে তাঁর পরিবার। সরবজিতকে শহীদের স্বীকৃতি দেওয়ারও দাবি জানিয়েছে তাঁরা। একইসঙ্গে তাঁদের দাবি, পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সরবজিত সিংয়ের শেষকৃত্য হোক।
১৯৯০ সাল থেকে পাকিস্তানের জেলে বন্দি ছিলেন সরবজিত্ সিং। তিনি লাহোর ও মুলতানে বিস্ফোরণের ষড়যন্ত্রে অভিযুক্ত। সরবজিতকে মৃত্যুদণ্ডের শাস্তি দেয় পাক আদালত। সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার আবেদন খারিজ করে দেয় পাক সুপ্রিম কোর্টও। সরবজিতের প্রাণভিক্ষার আবেদন খারিজ করে দেন প্রাক্তন পাক প্রেসিডেন্ট পারভেজ মুশারফ। এরপরে পাকিস্তান পিপলস পার্টি নেতৃত্বাধীন পাক সরকার অনির্দিষ্টকালের জন্য সরবজিতের প্রাণদণ্ড কার্যকরের প্রক্রিয়া স্থগিত করে দেয়। এই পরিস্থিতিতেই গত শুক্রবার লাহোরের কোট লাখপত জেলে সরবজিতের ওপর হামলা চালায় ছয় পাক বন্দি।
তাঁর মাথায় ইট দিয়ে বারবার আঘাত করা হয়। উদ্ধার করার পর লাহোরের জিন্না হাসপাতালে ভর্তি করা হয় সরবজিতকে। দ্রুত কোমাচ্ছন্ন হয়ে পড়েন তিনি। উপযুক্ত চিকিত্সার জন্য সরবজিতকে দেশে ফেরানোর অনুমতি চেয়ে পাকিস্তান সরকারকে বার বার অনুরোধ জানায় ভারত। কিন্তু তাতে  সাড়া দেয়নি ইসলামাবাদ। যদিও, সরবজিতের বোন, স্ত্রী ও দুই মেয়ের পনেরোদিনের ভিসা মঞ্জুর করে পাকিস্তান। রবিবার তাঁরা হাসপাতালে গিয়ে সরবজিতকে দেখে আসেন।



First Published: Thursday, May 2, 2013 - 20:10


comments powered by Disqus