এসএসসি বিভ্রাটে কমিশনের রিপোর্ট খারিজ স্কুলশিক্ষামন্ত্রীর

এসএসসি বিভ্রাটে কমিশনের রিপোর্ট খারিজ স্কুলশিক্ষামন্ত্রীর

এসএসসি বিভ্রাটে কমিশনের রিপোর্ট খারিজ স্কুলশিক্ষামন্ত্রীরপরীক্ষা বিভ্রাট নিয়ে স্কুল সার্ভিস কমিশনের তদন্ত রিপোর্ট ফিরিয়ে দিলেন শিক্ষামন্ত্রী। তাঁর অভিযোগ, গাফিলতির ফলে এই ঘটনা ঘটেছে বলা হলেও, কারা গাফিলতির সঙ্গে যুক্ত এবং এই গাফিলতি ইচ্ছাকৃত কিনা সেবিষয়ে রিপোর্টে নির্দিষ্টভাবে কিছুই বলা নেই। দোষীদের চিহ্নিত করে তিনদিনের মধ্যে ফের কমিশনকে রিপোর্ট জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন স্কুলশিক্ষামন্ত্রী। পরীক্ষার্থী, প্রশাসনিক আধিকারিকরা এবং কমিশনের কর্মী আধিকারিকদের একাংশ সকলেই অন্তর্ঘাতের সঙ্গে যুক্ত। বিগত ৪ দিন ধরে এমনই তত্ত্ব বারে বারে সামনে এনেছে স্কুলসার্ভিস কমিশন। কিন্তু বৃহষ্পতিবার এই তত্ত্ব থেকে সরে আসে কমিশন। প্রশ্নপত্র প্যাকেটে ঢোকানো এবং সেখান থেকে নির্দিষ্ট সংখ্যায় ট্রেজারিতে পাঠানো--এই জায়গাতেই গাফিলতি হয়েছে বলে বৃহষ্পতিবার নিজেদের রিপোর্টে জানিয়েছে স্কুল সার্ভিস কমিশন। তবে কমিশনের এই রিপোর্ট গ্রহণ করেননি শিক্ষমন্ত্রী। তাঁর দাবি শুধুমাত্র গাফিলতি নয়, কারা গাফিলতির সঙ্গে যুক্ত এবং কী কারণে তারা একাজ করেছেন তাও নির্দিষ্টভাবে জানাতে হবে কমিশনকে।
 
শিক্ষামন্ত্রী অন্তর্ঘাত নিয়ে মন্তব্য করতে না চাইলেও স্কুল সার্ভিস কমিশন মনে করেছে ইচ্ছাকৃতভাবেই বিভ্রাট ঘটানো হয়েছে। সেক্ষেত্রে কমিশনের আধিকারিক ও কর্মীদের একাংশ এবং প্রেসের কিছু লোক এই ঘটনার সঙ্গে জড়িয়ে আছে বলে মনে করছে কমিশন। এদিকে বৃহষ্পতিবার বিভিন্ন জেলা শাসকরা যে রিপোর্ট জমা দিয়েছেন সেখানে পরিষ্কার বলা হয়েছে কমিশনের পক্ষ থেকেই তাদের কাছে কম প্রশ্নপত্র পাঠানো হয়েছিল। ফলে এতদিন পরীক্ষাকেন্দ্রে কম প্রশ্ন পাঠানো নিয়ে কমিশন যে অভিযোগ এতদিন করে আসছিল তা পুরোপুরি অস্বীকার করেছেন জেলাশাসকরা। কিন্তু এবছর প্যাকেটিং করার দায়িত্বে ছিল সরকারি প্রেস। ফলে কমিশন যা মনে করছে তা যদি সত্যিই হয়ে থাকে তাহলে গোটা বিভ্রাটের দায়িত্বে থাকবে শুধুমাত্র কমিশনের কর্মী আধিকারিক এবং সরকারি প্রেসের কর্মীরা। সেক্ষেত্রে সরকার নিজের দায়িত্ব কীভাবে এড়াবে ?     







First Published: Thursday, August 02, 2012, 20:07


comments powered by Disqus