গুড ফ্রাইডের আগে ব্যাড থার্সডে মোহনবাগানের

গুড ফ্রাইডের আগে`ব্যাড থার্সডে` মোহনবাগানের

গুড ফ্রাইডের আগে`ব্যাড থার্সডে` মোহনবাগানেরমোহনবাগান (২) লাজং এফসি (২)
(টোলগে, মনীশ মাথানি) (বোইতাং, লাললিমথারা)

কল্যাণী স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবারের এই আই লিগ ম্যাচটা হতে পারে এক রকম আর বাস্তবে হল অন্যরকম। হোলির দিনের ম্যাচটা মানাতো টোলগেদের ফুটবল রঙ দেখে, বাস্তবে হল ফ্যাকাসে হতাশার ফুটবল। লাজংয়ের কাছে পয়েন্ট হারিয়ে আই লিগে অবনমনের 'বিপদঘণ্টা' জোরাল হল মোহনবাগানে। ম্যাচের প্রথমার্ধ গোলশূন্য থাকার পর হোলির দিন টোলগেদের খেলা দেখে মনে হচ্ছিল সব রঙ মাঠের বাইরে খেলে এসেছেন, তাই এতটা বর্ণহীন। তবে বিরতির পরে দশ মিনিট দারুণ খেলে গোল তুলে নেয় মোহনবাগান। ম্যাচের ৫২ মিনিটে দলের প্রথম গোলটি করেন টোলগে। এক মিনিট বাদেই অবশ্য গোলশোধ করে দেয় লাজং এফসি। ম্যাচের ৬০ মিনিটে আবার দলকে এগিয়ে দেন মনীশ মাথানি। ডিফেন্সের দোষে অবশ্য সেই গোলও ধরে রাখতে পারেনি করিমের দল।

এগিয়ে থেকেও লাজং এফসি বিরুদ্ধে ২-২ ফলে ড্র করার পর দলের ফুটবলারদের মনঃসংযোগের অভাবকেই দায়ি করলেন কোচ করিম বেঞ্চারিফা। ফুটবলারদের মনঃসংযোগের ঘাটতিকে দায়ী করার পাশাপাশি পয়েন্ট হারানোর সাফাইও গেয়ে রাখলেন করিম। দুই পয়েন্ট হারানোর পরও করিমের কাছে পজিটিভ পয়েন্ট একটাই,টোলগেরা নিয়মিত গোল পাচ্ছেন। যা ডেম্পো ম্যাচের আগে খানিকটা চিন্তা কমিয়েছে কোচের।


ম্যাচ ড্র করে দুই পয়েন্ট নষ্টের জন্য সরাসরি ডিফেন্সকেই দায়ী করলেন কুইন্টন জ্যাকবস। কুইন্টনের অভিযোগ, ডিফেন্সের দোষেই তাঁরা গোল ধরে রাখতে পারছেন না। আই লিগ টেবিলে এখন বেশ চাপে মোহনবাগান। তাই দলের কাছে সব ম্যাচই ফাইনাল বলে মত কুইন্টনের।







First Published: Thursday, March 28, 2013, 20:33


comments powered by Disqus