গড়করি-হটাও-দলে এবার শত্রুঘ্ন সিনহাও

বিজেপি সভাপতি পদ থেকে নিতিন গড়করির অপসারণে আদর্শগতভাবে তিনি যে রাম জেঠমালানি, যশবন্ত সিনহার পক্ষে তা স্পষ্ট করে দিলেন বিজেপি নেতা শত্রুঘ্ন সুনহা। পাটনা সাহিবের বিজেপি সাংসদ আজ সাংবাদিকদের বলেন, জেঠমালানি এবং যশবন্ত সিনহার উত্থাপিত প্রশ্নগুলি গুরুত্ব দিয়ে বিচার করা উচিত। তিনি আরও বলেন, "দলের শীর্ষ পদে থাকা কোনও নেতাকে শুধু সৎ নয়, দৃশ্যত সৎ থাকতে হবে।" যশবন্ত সিনহা এবং রামজেঠমালানি প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে শত্রুঘ্ন সিনহা বলেন, "এঁরা দুজনেই প্রধানমন্ত্রী পদে যোগ্য প্রার্থী। তবে এই মুহূর্তে লালকৃষ্ণ আডবাণীই যোগ্যতম প্রধানমন্ত্রী পদের দাবিদার।"

Updated: Nov 24, 2012, 09:20 PM IST

বিজেপি সভাপতি পদ থেকে নিতিন গড়করির অপসারণে আদর্শগতভাবে তিনি যে রাম জেঠমালানি, যশবন্ত সিনহার পক্ষে তা স্পষ্ট করে দিলেন বিজেপি নেতা শত্রুঘ্ন সুনহা। পাটনা সাহিবের বিজেপি সাংসদ আজ সাংবাদিকদের বলেন, জেঠমালানি এবং যশবন্ত সিনহার উত্থাপিত প্রশ্নগুলি গুরুত্ব দিয়ে বিচার করা উচিত। তিনি আরও বলেন, "দলের শীর্ষ পদে থাকা কোনও নেতাকে শুধু সৎ নয়, দৃশ্যত সৎ থাকতে হবে।" যশবন্ত সিনহা এবং রামজেঠমালানি প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে শত্রুঘ্ন সিনহা বলেন, "এঁরা দুজনেই প্রধানমন্ত্রী পদে যোগ্য প্রার্থী। তবে এই মুহূর্তে লালকৃষ্ণ আডবাণীই যোগ্যতম প্রধানমন্ত্রী পদের দাবিদার।"
সভাপতির পদ থেকে গড়করির ইস্তফা দাবি করে জেঠমালানি এর আগেই বলেছিলেন অনেক বিজেপি নেতাই তাঁর সঙ্গে এই বিষয়ে একমত। যশবন্ত সিনহা গড়করির অপসারণের প্রশ্নে সিনিয়র জেঠমালানির পাশে দাঁড়ানোর আগে অবশ্য তাঁর পুত্র মহেশ জেঠমালানিও একই দাবি তোলেন।
অন্যদিকে, শুধু গড়করি প্রশ্নে নয়, সিবিআই শীর্ষপদে রঞ্জিত সিনহাকে বসানোর ক্ষেত্রেও জেঠমালানিকে সমর্থণ করেন শত্রুঘ্ন সিনহা। তাঁর বক্তব্য, "সিবিআই-এর মতো গুরুত্বপূর্ণ একটি সংস্থার শীর্ষপদ কখনওই ফাঁকা রাখা যায় না... নবনিযুক্ত ডিরেক্টরকে নিয়ম মেনেই স্থলাভিষিক্ত করা হয়েছে।" রঞ্জিত সিনহা অভিজ্ঞ এবং যোগ্য আইপিএস অফিসর বলেও দাবি তাঁর।
এর আগে, সিবিআই-এর ডিরেক্টর পদে রঞ্জিত সিনহাকে বসানোর বিরোধিতায় সংসদে বিজেপি নেতৃত্ব সুষমা স্বরাজ এবং অরুণ জেঠলি প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি পাঠান।