ডিএমকের সঙ্গে কোনও সংঘাত নেই: আলাগিরি

ডিএমকের সরকার ছেড়ে বেরিয়ে আসার সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ তিনি, একথা অস্বীকার করলেন এম কে আলাগিরি। শারীরিক অসুস্থতার কারণেই তিনি আজকের গুরুত্বপূর্ণ এক্সিকিউটিভ কমিটির বৈঠকে যেতে পারেননি বলে জানিয়েছেন আলাগিরি। দলীয় সংঘাতের কথাও উড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। তবে শারীরিক অসুস্থতা সত্ত্বেও তিনি কীভাবে মাদুরাই গেলেন? সে বিষয়ে মুখ খুলতে নারাজ ডিএমকে নেতা তথা প্রাক্তন কেন্দ্রীয়মন্ত্রী।

Updated: Mar 25, 2013, 11:08 AM IST

ডিএমকের সরকার ছেড়ে বেরিয়ে আসার সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ তিনি, একথা অস্বীকার করলেন এম কে আলাগিরি। শারীরিক অসুস্থতার কারণেই তিনি আজকের গুরুত্বপূর্ণ এক্সিকিউটিভ কমিটির বৈঠকে যেতে পারেননি বলে জানিয়েছেন আলাগিরি। দলীয় সংঘাতের কথাও উড়িয়ে দিয়েছেন তিনি।
তবে শারীরিক অসুস্থতা সত্ত্বেও তিনি কীভাবে মাদুরাই গেলেন? সে বিষয়ে মুখ খুলতে নারাজ ডিএমকে নেতা তথা প্রাক্তন কেন্দ্রীয়মন্ত্রী। মাদুরাই চলে যাওয়ার দলের এক্সিকিউটিভ কমিটির বৈঠকে যোগ দিলেন না করুণানিধি পুত্র এমকে আলাগিরি। ইউপিএর সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে কুরুণানিধিকে চাপ দিচ্ছিলেন স্টালিন। এই কারণে দলের মধ্যেই উষ্মা প্রকাশ করেন আলাগিরি।
সমর্থন প্রত্যাহারের সময় আলাগিরির সঙ্গে আলোচনা করা হয়নি বলে অভিযোগ। প্রধানমন্ত্রীকে ইস্তফাপত্র দেওয়ার সময়ও অন্য মন্ত্রীদের থেকে আলাদা থেকেছেন আলাগিরি। ইস্তফা দেওয়ার আগে অর্থমন্ত্রী পি চিদাম্বরমের সঙ্গেও দফায় দফায় দেখা করেন তিনি। সমর্থন প্রত্যাহারের পদ্ধতিগত দিকেরও কড়া সমালোচনা করেছেন তিনি করুণানিধি পুত্র।
শ্রীলঙ্কায় তামিল ইস্যু নিয়ে নিজেদের অবস্থান ঠিক করতে আজ জরুরী বৈঠকে বসছে ডিএমকে শীর্ষ নেতৃত্ব। দলীয় ঐক্য বজায় রাখতে না পারলে দল বড় ক্ষতির মুখে পড়বে বলে শনিবারই দলীয় কর্মীদের বার্তা দেন ডিএমকে প্রধান এমকে করুণানিধি। আলাগিরির ভূমিকায় রবিবারই দলীয় বিভাজনের ছবিটা অনেকটাই স্পষ্ট হয়েছে। দলের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে কথা বলে শ্রীলঙ্কার তামিল ইস্যু নিয়ে ডিএমকে আজই তাদের অবস্থান স্পষ্ট করতে পারে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।