আড়ি পাতা কাণ্ড: `দলের সম্পদকে বাঁচাতে` এখন কংগ্রেসকে আক্রমণ বিজেপির

কংগ্রেস সহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুল যখন আড়ি পাতা বিতর্কে গুজরাত মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও তাঁর ঘনিষ্ট অমিত শাহকে নিশানা বানাচ্ছে। তখন পাল্টা আক্রমণের রাস্তা নিল ভারতীয় জনতা পার্টি। দলের দুই শীর্ষ নেতাকে বাঁচাতে বিরোধীদের আক্রমণকেই শ্রেয় বলে মনে করছে বিজেপি।

Updated: Nov 20, 2013, 06:25 PM IST

কংগ্রেস সহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুল যখন আড়ি পাতা বিতর্কে গুজরাত মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও তাঁর ঘনিষ্ট অমিত শাহকে নিশানা বানাচ্ছে। তখন পাল্টা আক্রমণের রাস্তা নিল ভারতীয় জনতা পার্টি। দলের দুই শীর্ষ নেতাকে বাঁচাতে বিরোধীদের আক্রমণকেই শ্রেয় বলে মনে করছে বিজেপি।
বুধবার বিজেপির মুখপাত্র প্রকাশ জাভরেকর বলেন, "নোংড়া রাজনীতি খেলছে কংগ্রেস।" ব্যাক্তিগত ইস্যুকে রাজনৈতিক রং চড়ানোর অভিযোগ আনা হয়েছে বিজেপির তরফ থেকে। কংগ্রেসকে একহাত নিয়ে জাভরেকর বলেন, "বিজপিও যদি কংগ্রেসের মতো নোংরা রাজনীতির রাস্তা নেয়, তাহলে তাঁদের পক্ষে সামলানো মুশকিল হয়ে দাঁড়াবে।" আড়ি পেতে কংগ্রেস কারোর পারিবারিক ও ব্যক্তিগত অধিকারে হস্তক্ষেপ করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিজেপি নেতা।
আড়ি পাতা কাণ্ড সামনে আসার পর থেকেই রাজনীতিতে প্রবল ঝড় ওঠে। দুটি ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়, ১৫ নভেম্বর এক মহিলার ওপর নিয়ম বহির্ভুত ভাবে নজরদারি চালানোর নির্দেশ দিয়েছিলেন মোদী ঘনিষ্ট অমিত শাহ্‌।
আড়ি-কাণ্ডে ঝুলি থেকে বেরোচ্ছে একের পর এক বেড়াল। গুজরাতের প্রথমসারির এক নেতার সঙ্গে এক মহিলার সম্পর্কের কথা জেনে ফেলাতেই সরকারের রোষানলে পড়তে হয়েছিল তাঁকে। এমনই বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন গুজরাতের প্রাক্তন আমলা প্রদীপ শর্মা। প্রায় একই অভিযোগ এনেছেন গুজরাতের আরেক পুলিসকর্তা আর বি শ্রীকুমার। মহিলার ওপর লাগাতার নজরদারির অভিযোগে ইতিমধ্যেই চরম অস্বস্তিতে মোদী ঘনিষ্ঠ অমিত শাহ।
প্রথম বোমাটা ফাটিয়েছিলেন গুজরাতের পুলিসকর্তা এইচ এল সিঙ্ঘল। এবার সেই সূত্র ধরেই মুখ খুলতে শুরু করলেন গুজরাতের প্রাক্তন আরও কয়েকজন আমলা। মহিলার ওপর নজরদারি বিতর্কে ইতিমধ্যেই বেজায় অস্বস্তিতে অমিত শাহ। এবার গোদের ওপর বিষফোঁড়া। বোমা ফাটালেন গুজরাতেরই প্রাক্তন আমলা প্রদীপ শর্মা। গুজরাতের এক শীর্ষ রাজনীতিকের সঙ্গে সম্পর্ক ছিল ওই মহিলার। আর সেই কথাটাই জানতে পেরে গিয়েছিলেন প্রদীপ শর্মা। প্রাক্তন আমলার অভিযোগ, সেই কারণেই তাঁকে দুর্নীতির মিথ্যা অভিযোগে ফাঁসিয়েছে মোদী সরকার। এবার সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন প্রদীপ শর্মা।