তীব্র দাবদাহ উত্তরভারতে

রাজধানী দিল্লিসহ উত্তর ও মধ্যভারতের বিস্তীর্ণ এলাকায় শুরু হয়েছে তীব্র দাবদাহ। গতকাল দিল্লির সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৪৪.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রাজস্থানের চুরুতে তাপমাত্রার পারদ ছুঁয়েছে ৪৮ ডিগ্রিতে। আগামী কয়েকদিনও তাপপ্রবাহ বজায় থাকবে বলেই সতর্কবার্তা জারি করেছে মৌসম ভবন।  

Updated: May 21, 2013, 09:56 AM IST

রাজধানী দিল্লিসহ উত্তর ও মধ্যভারতের বিস্তীর্ণ এলাকায় শুরু হয়েছে তীব্র দাবদাহ। গতকাল দিল্লির সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৪৪.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রাজস্থানের চুরুতে তাপমাত্রার পারদ ছুঁয়েছে ৪৮ ডিগ্রিতে। আগামী কয়েকদিনও তাপপ্রবাহ বজায় থাকবে বলেই সতর্কবার্তা জারি করেছে মৌসম ভবন।  
নির্ধারিত সময়ের তিনদিন আগেই দক্ষিণ পশ্চিম মৌসুমী বায়ুর হাত ধরে আন্দামানে ঢুকে পড়েছে বর্ষা। ৩ জুনের মধ্যে কেরলেও বর্ষার পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দফতর। কিন্তু রাজধানী দিল্লিসহ উত্তরভারতের বিস্তীর্ণ অংশ এবং মধ্যভারত জুড়ে চলছে তীব্র তাপপ্রবাহ। সোমবার দিল্লিতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা পৌঁছয় ৪৪.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। উত্তর পশ্চিম ভারতের রাজস্থানে তাপমাত্রার পারদ ছুঁয়েছে ৪৮.২ডিগ্রি সেলসিয়াসে। সোমবার শ্রীগঙ্গানগর ও কোটায় তাপমাত্রা ছিল যথাক্রমে ৪৬.৫ এবং ৪৬.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। হরিয়ানায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা পৌঁছে গেছে ৪৬ ডিগ্রিতে। রবিবার চণ্ডীগড়ে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা স্বাভাবিকের থেকে পাঁচ ডিগ্রি বেড়ে হয়েছে ৪২.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। মৌসম ভবন সূত্রে খবর, দিল্লির পাশাপাশি তাপপ্রবাহ শুরু হয়েছে জম্মু কাশ্মীর, হিমাচলপ্রদেশ, পঞ্জাব, হরিয়ানা, রাজস্থান, উত্তরপ্রদেশের কিছু অংশ এবং উত্তরাখণ্ডে। ২৪ মে পর্যন্ত এই তাপপ্রবাহ চলবে বলেই সতর্ক করেছেন আবহবিদেরা। দুহাজার দশ সালের পর  এত দীর্ঘসময় ধরে তাপপ্রবাহের কবলে পড়ল দিল্লি। 
 
তাপপ্রবাহের কবলে পড়েছে মধ্যভারতের ভুপালও। সোমবার ভুপালের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা পৌঁছে যায় চুয়াল্লিশ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। প্রচণ্ড গরমে বাইরে বার হতে পারছেন না মানুষ।  
 
৫ মের পর জম্মু কাশ্মীর, হিমাচলপ্রদেশ, উত্তরাখণ্ডে পশ্চিমী ঝঞ্ঝার অনুপ্রবেশ ঘটবে। ফলে দিল্লিসহ উত্তরভারতের বিভিন্ন এলাকার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা কিছুটা হলেও কমবে। তবে তা সাময়িক বলেই জানিয়েছেন আবহবিদেরা। মে মাসের শেষের দিকে ফের শুরু হবে দাবদাহ শুরু হবে উত্তরভারতে।