মহাকাশে সুনীতা

মহাকাশে সুনীতা

মহাকাশে সুনীতা দুদিন মহাশুণ্যে যাত্রা করে মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে পৌঁছলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত সুনীতা উইলিয়ামস ও তার দুই সহযাত্রী নভোশ্চর। ভারতীয় সময় সকাল ১০টা ২১ নাগাদ স্পেস স্টেশন পৌঁছয় তাঁদের মহাকাশযান। গত ১৫ জুলাই কাজাখিস্তান থেকে রুশ সয়ুজ টিএমএ-জিরোএমফাইভ যানে মহাকাশে রওনা দিয়েছিলেন তাঁরা। এই অভিযানে চারমাস স্পেস স্টেশনে থাকবেন সুনীতা ও তার সঙ্গী মহাকাশচারী ইউরি ম্যালেনচেঙ্কো এবং আকিহিকো হোসিদে। অভিযানে সুনীতা উইলিয়ামস স্পেস স্টেশনের কমান্ডারের দায়িত্ব নেবেন। অবতরণের প্রায় ৩ ঘণ্টা পর স্পেস স্টেশনে ঢোকেন সুনীতা উইলিয়ামসরা। এর কিছু পরে স্পেস স্টেশন নাসার কন্ট্রোল রুমে সরাসরি কথা বলেন তাঁরা। প্রায় ৬ বছর পর স্পেস স্টেশনে ফিরে উচ্ছ্বসিত সুনীতা।

মহাকাশে পৌঁছেই সয়ুজের হ্যাচ খুলে স্পেস সেন্টারের ভিতরে পৌঁছে যান ৩ অভিযাত্রী। তাঁদের অভ্যর্থনা জানান স্পেস স্টেশনে উপস্থিত তিন নভোশ্চর গেনাডি পাডালকা, সার্গেই রেভিন এবং জো আকাবা। নাসার মহাকাশচারী সুনীতা উইলিয়ামসের স্পেস সেন্টারে এটা দ্বিতীয় অভিযান। মহিলা নভোশঅচরদের ক্ষেত্রে মহাকাশে সর্বোচ্চ ১৯৫ দিন কাটানোর রেকর্ডও তাঁরই দখলে। ৬ বছর পর মহাকাশে ফিরে এসে উচ্ছাস চেপে রাখতে পারেননি সুনীতা। স্পেস স্টেশন থেকে সরাসরি নাসার কন্ট্রোল রুমে কথা বলার সময় বারে বারে ধরা পড়েছে এই উচ্ছাস। স্পেস স্টেশনে ছয় সদস্যের এই দল আগামী দুমাস কাজ করবেন। তারপর গেনাডি পাডালকা, সার্গেই রেভিন এবং জো আকাবা পৃথিবীতে ফিরে আসবেন।

এরপরই স্টেশনের কমান্ডের দায়িত্ব নেবেন সুনীতা উইলিয়ামস। সুনীতার নেতৃত্বে তিন সদস্যের দল স্পেস স্টেশন থাকবে নভেম্বর পর্যন্ত। মহাকাশ থেকেই তাঁরা লন্ডন অলিম্পিকস দেখবেন। ভারতীয় বংশোদ্ভুত সনীতা মার্কিন নাগরিক। নভেম্বরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে নিজের ভোটটিও তিনি দেবেন স্পেস সেন্টার থেকেই। নভেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে পৃথিবীর উদ্দেশে পাড়ি দেবেন সুনীতা উইলিয়াম ও তাঁর দুই সহযাত্রী।

First Published: Tuesday, July 17, 2012, 19:38


comments powered by Disqus