মধ্যপ্রদেশে সুইস মহিলা ধর্ষণ কাণ্ড, গ্রেফতার ৫

মধ্যপ্রদেশের দাতিয়ায় সুইস মহিলাকে গণধর্ষণের অভিযোগে ধৃতদের মধ্যে পাঁচজন অপরাধ স্বীকার করে নিয়েছে বলে পুলিস সূত্রে খবর। তাঁদের সকললেই গ্রেফতার করা হয়েছে।

Updated: Mar 17, 2013, 09:10 AM IST

মধ্যপ্রদেশের দাতিয়ায় সুইস মহিলাকে গণধর্ষণের অভিযোগে ধৃতদের মধ্যে পাঁচজন অপরাধ স্বীকার করে নিয়েছে বলে পুলিস সূত্রে খবর। তাঁদের সকললেই গ্রেফতার করা হয়েছে।

এরাগে এই ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে ২০ জনকে আটক করে পুলিস। শুক্রবার রাতে দাতিয়া শহরের কাছে জঙ্গল ঘেরা এলাকায় তাঁদের ক্যাম্পে হানা দেয় সাত থেকে আট জন অজ্ঞাতপরিচয় দুষ্কৃতী। ল্যাপটপ সহ ওই দম্পতির জিনিসপত্র কেড়ে নেওয়ার পাশাপাশি মহিলাকে ধর্ষণ করে তারা। সাইকেলে স্বামীর সঙ্গে ভারত ভ্রমণে বেরিয়েছিলেন সুইজারল্যান্ডের বাসিন্দা ৩৯ বছরের ওই ভদ্রমহিলা। আগ্রা যাওয়ার পথে শুক্রবার মধ্যপ্রদেশের দাতিয়া শহর থেকে আট কিলোমিটার দূরে ঝরিয়া গ্রামে পৌঁছন তাঁরা। জঙ্গল ঘেরা এই এলাকায় রাতে থাকার সিদ্ধান্ত নেন দুজনে। এরপরই দুষ্কৃতী হামলার শিকার হন তাঁরা। মারধর করে ওই দম্পতির জিনিসপত্র কেড়ে নেওয়া হয়। স্বামীর সামনেই সুইশ মহিলাকে গণধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ। পরে, তাঁকে গোয়ালিয়রের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। ডাক্তারি পরীক্ষায় ধর্ষণের প্রমাণ মিলেছে বলে জানিয়েছে পুলিস। দুষ্কৃতীদের খোঁজে দাতিয়ার জঙ্গল এলাকায় তল্লাসি চালানো হচ্ছে।
গণধর্ষণের ঘটনায় দোষীদের দ্রুত শাস্তির জন্য মধ্যপ্রদেশ সরকারের পদক্ষেপ দাবি করেছেন জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন।
গোটা ঘটনায় বিজেপি শাসিত মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহানের পদত্যাগ দাবি করেছে কংগ্রেস। মধ্যপ্রদেশ সরকারের বিরুদ্ধে ভোপালে বিক্ষোভ দেখায় তারা।
গণধর্ষণের ঘটনায় দোষীদের দ্রুত শাস্তির জন্য মধ্যপ্রদেশ সরকারকে উদ্যোগী হওয়ার আবেদন জানিয়েছে সুইস দূতাবাস।