শেষবেলায় ত্রিপুরায় প্রচারে ঝাঁপাল তৃণমূল, ময়দানে নামলেন দেব, ববিরা

একটু দেরিতে হলেও ত্রিপুরা নির্বাচনে প্রচারে নামল তৃণমূল কংগ্রেস। সোমবার আগরতলায় পৌঁছলেন তৃণমূল সাংসদ দেব। সঙ্গে রয়েছেন মন্ত্রী ববি হাকিম, শশী পাঁজা, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, নির্বেদ রায়রা। এদিকে, নির্বাচনের দিন ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই সেখানে ঘাঁটি গেড়েছেন বিধাননগর পুরসভার মেয়র সব্যসাচী দত্ত।

Updated: Feb 12, 2018, 08:34 PM IST
শেষবেলায় ত্রিপুরায় প্রচারে ঝাঁপাল তৃণমূল, ময়দানে নামলেন দেব, ববিরা

নিজস্ব প্রতিবেদন : একটু দেরিতে হলেও ত্রিপুরা নির্বাচনে প্রচারে নামল তৃণমূল কংগ্রেস। সোমবার আগরতলায় পৌঁছলেন তৃণমূল সাংসদ দেব। সঙ্গে রয়েছেন মন্ত্রী ববি হাকিম, শশী পাঁজা, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, নির্বেদ রায়রা। এদিকে, নির্বাচনের দিন ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই সেখানে ঘাঁটি গেড়েছেন বিধাননগর পুরসভার মেয়র সব্যসাচী দত্ত।

এদিন সকাল থেকেই ত্রিপুরার বিভিন্ন অঞ্চলে প্রচারে নামেন তৃণমূল নেতা মন্ত্রীরা। কথা বলেন সাধারণ মানুষের সঙ্গে। দেখা করেন ত্রিপুরার সীমান্ত সংলগ্ন এলাকায় থাকা উপজাতিভূক্ত মানুষদের সঙ্গেও।

আরও পড়ুন- মানিক নয়, হিরে চাই ত্রিপুরার : মোদী

আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি ত্রিপুরা বিধানসভার নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। ৬০ আসনের এই বিধানসভায় এবার লড়াই মূলত বাম, তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে। কংগ্রেস লড়াইয়ের ময়দানে থাকলেও তাদের শক্তি নিতান্তই দুর্বল এখানে।

২০১২ সাল থেকে ত্রিপুরায় সাংগঠনিক শত্তি বৃদ্ধিতে নেমেছে তৃণমূল। সেই সময় দায়িত্বে ছিলেন দলের অন্যতম সদস্য মুকুল রায়। মূলত তাঁর নেতৃত্বেই কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেন ৬ জন বিধায়ক। কিন্তু, ২০১৭ সালে মুকুল রায় তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার ঠিক আগেই  সেখানে ধাক্কা খায় তৃণমূল। ওই ছয় বিধায়ক তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে চলে যান বিজেপিতে।

এই পরিস্থিতিতে নির্বাচনের দিন ঘোষণা হওয়ার আগে থেকেই কার্যত প্রচারে জোর দিয়েছে বিজেপি। এবার এক ধাক্কায় জোর প্রচারে নামল তৃণমূলও। আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি সেখানে প্রচারে যাচ্ছেন শুভেন্দু অধিকারী।  

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close