উপরাষ্ট্রপতি পদে ইউপিএ প্রার্থী আনসারি, রবিবার বৈঠকে তৃণমূল

Last Updated: Saturday, July 14, 2012 - 22:07

রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের মতোই জোটশরিক তৃণমূল কংগ্রেসের প্রস্তাবকে আমল না দিয়েই ইউপিএর উপরাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী হিসেবে হামিদ আনসারির নাম চূড়ান্ত করল কংগ্রেস। আর তাত্‍পর্যপূর্ণভাবে এ ক্ষেত্রেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়া ইউপিএ জোটেভূক্ত সমস্ত দলের নেতৃত্বই বর্তমান উপরাষ্ট্রপতির পুনর্মনোনয়নের প্রশ্নে এককাট্টা রইলেন।
এই পরিস্থিতিতে আগামীকাল রাষ্ট্রপতি ও উপরাষ্ট্রপতি ভোটে দলীয় অবস্থান স্থির করতে দলীয় পদাধিকারীদের সঙ্গে বৈঠক করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সম্ভবত সোমবার এ ব্যাপারে দলের অবস্থান ঘোষণা করবেন তিনি। ইতিমধ্যেই আগামী ১৮ জুলাই, রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের আগের দিন দলের সমস্ত সাংসদ-বিধায়ককে কলকাতায় হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছে তৃণমূল নেতৃত্ব।
শনিবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহের ৭ রেসকোর্স রোডের সরকারি বাসভবনে আয়োজিত ইউপিএ-র বৈঠকে বর্তমান উপরাষ্ট্রপতিকেই ফের ওই নির্বাচনে জোট প্রার্থী হিসেবে মনোনীত করা হয়। মাত্র আধ ঘণ্টার এই বৈঠকের পরই আনসারির নাম উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচনের প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করেন ইউপিএ-র চেয়ারপার্সন সনিয়া গাঁধী। বৈঠকে পর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পালানিয়াপ্পন চিদাম্বরম জানান, জোট শরিকরা সর্বসম্মত ভাবেই আনসারিকে উপরাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী হিসেবে বেছে নিয়েছেন।

এদিন প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে বিকেল ৫টার এই বৈঠকে তৃণমূলের তরফে হাজির ছিলেন মুকুল রায়। সূত্র খবর, বৈঠকে কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশ মাফিক পাল্টা প্রার্থী হিসেবে গোপালকৃষ্ণ গাঁধী ও কৃষ্ণা বসুর নাম প্রস্তাব করলেও তাতে আমল দেয়নি কংগ্রেস-সহ ইউপিএ জোটের কোনও নেতাই। তবে বৈঠকে গোপালকৃষ্ণ গান্ধী ও কৃষ্ণা বসুর নাম প্রস্তাব করলেও ইউপিএ-র প্রার্থী হিসাবে হামিদ আনসারির নামের সরাসরি বিরোধিতাও করেননি মুকুল রায়। তৃণমূল নেত্রীর সঙ্গে আলোচনা করে কয়েকদিনের মধ্যে দলীয় সিদ্ধান্ত স্পষ্ট করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।  
 
আগামী ৭ অগাস্ট সংসদের উভয় কক্ষের সদস্যরা উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচন করবেন। মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া শেষ দিন ২০ জুলাই। কংগ্রেস সূত্রে খবর, ১৬-১৭ তারিখে মনোনয়ন জমা দিতে পারেন আনসারি। প্রসঙ্গত, উপ-রাষ্ট্রপতি পদে প্রার্থী হিসাবে হামিদ আনসারিকে সমর্থনের ব্যাপারে ইতিমধ্যেই সমাজবাদী পার্টির নেতা মুলায়ম সিং যাদব ও বিএসপি নেত্রী মায়াবতীর সঙ্গে আলোচনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। সিপিআইএমের সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ কারাতের সঙ্গেও কথা বলেছেন তিনি। সূত্রে খবর, বিজেপি নেত্রী সুষমা স্বরাজের সঙ্গেও আনসারিকে সমর্থনের ব্যাপারে কথা হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর। আনসারিকে বিজেপি সমর্থন করবে না বলে জানিয়ে দেন সুষমা স্বরাজ।

এদিনই উপরাষ্ট্রপতি ভোটের রণকৌশল স্থির করতে দলীয় সভাপতি নীতিন গডকড়ীর বাড়িতে বৈঠকে বসে বিজেপির কোর কমিটি। সেখানে বিজু জনতা দল, এআইএডিএমকে, তেলুগু দেশম, আইএনএলডি`র মতো প্রাক্তন এনডিএ শরিক দলগুলির সঙ্গে সমঝোতা প্রার্থী দেওয়ার বিষয়ে অগ্রসর হওয়ার ব্যাপারে আলোচনা হয়। ১১ অশোক রোডের অন্দরের খবর, উপরাষ্ট্রপতি পদে তৃণমূল কৃষ্ণা বসুকে দাঁড় করালে সমর্থন করতে পারে বিজেপি। এ ব্যাপারে ইতিমধ্যেই তৃণমূলের কাছে বার্তাও পাঠান হয়েছে।
রাজনৈতিক মহলের ধারণা, রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে এ পি জে আবদুল কামালকে তুলে ধরেও শেষ পর্যন্ত তাঁর সম্মতি না পাওয়ার ঘটনার পর আর গোপালকৃষ্ণ গান্ধী নাম নিয়ে এগোবে না তৃণমূল। এই পরিস্থিতিতে উপরাষ্ট্রপতি পদে নির্বাচনে কৃষ্ণা বসু সম্পর্কে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কী অবস্থান নেন সেদিকেই নজর রাজনৈতিক মহলের।



First Published: Saturday, July 14, 2012 - 22:15


comments powered by Disqus