প্রতিশ্রুতি পালনেও পিছিয়ে ইউপিএ

Last Updated: Wednesday, June 13, 2012 - 11:29

সিদ্ধান্তহীনতার অভিযোগ তো ছিলই। এবার আরও একটি কলঙ্ক লাগল মনমোহন সরকারের গায়ে। সমীক্ষায় প্রকাশ, স্বাধীনতার পর থেকে কেন্দ্রে যতগুলি সরকার গঠিত হয়েছে, প্রতিশ্রুতি পালনের নিরিখে, দ্বিতীয় ইউপিএ সরকারের পারফরম্যান্সই সবচেয়ে খারাপ।
সংসদীয় রীতি অনুযায়ী লোকসভা বা রাজ্যসভায় দেওয়া প্রতিশ্রুতি ৩ মাসের মধ্যে পালন করা কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের কর্তব্য। কোনও ক্ষেত্রে দেরী হওয়ার আশঙ্কা থাকলে সংসদের সচিবদের কাছে সময়সীমা বাড়ানোর আবেদন জানানো যেতে পারে। তবে সংসদে দেওয়া প্রতিশ্রুতি পালনে ব্যর্থ কোনও মন্ত্রীর বিরুদ্ধে কড়া শাস্তির কোনও বিধান ভারতীয় সংবিধানে নেই। সেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীর বিরুদ্ধে স্বাধিকার ভঙ্গের নোটিশ আনা যেতে পারে। সদ্যসমাপ্ত বাজেট অধিবেশনে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী গুলাম নবি আজাদ ও অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রী অজিত সিংয়ের বিরুদ্ধে স্বাধিকার ভঙ্গের নোটিস এনেছিলেন বিরোধীরা। আজাদের বিরুদ্ধে তাঁর মন্ত্রক সম্পর্কে একাধিকবার ভুল তথ্য দেওয়ার অভিযোগ আনা হয়। অজিত সিংয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল অধিবেশন চলাকালীন এয়ার ইন্ডিয়া নিয়ে তিনি সংসদের বাইরে বিবৃতি দিয়েছেন। দু`টি ক্ষেত্রেই অভিযুক্ত মন্ত্রীদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেননি স্পিকার। সমীক্ষায় প্রকাশ, দ্বিতীয় ইউপিএ সরকার গত ৩ বছরে তাদের প্রতিশ্রুতির অর্ধেকও পালন করেনি।
পরিসংখ্যান বলছে, গত ৩ বছরে ৬,৬৩৪টি প্রতিশ্রুতির মধ্যে মাত্র ৩,২২৬টি পালন করেছে দ্বিতীয় ইউপিএ সরকার। এর মধ্যে ২০০৯ সালে ২,০১৪টি প্রতিশ্রুতির মধ্যে ১,৫২৫টি পালন করা হয়েছিল। ২০১০ সালে ২,৬৩১টি প্রতিশ্রুতির ১,৩৬৯টি পালন করা হয়েছিল। ২০১১ সালে মনমোহন সরকারের দেওয়া ২,০৮৯টি প্রতিশ্রুতির মধ্যে মাত্র ২৭২টি পালন করা হয়েছে। যদিও প্রতিশ্রুতি রক্ষার নিরিখে প্রথম ইউপিএ সরকারের পারফরম্যান্স বেশ ভালো। প্রথম ইউপিএ সরকার তাদের প্রতিশ্রুতির ৯২ শতাংশেরও বেশি পালন করেছিল।



First Published: Wednesday, June 13, 2012 - 11:29


comments powered by Disqus
Live Streaming of Lalbaugcha Raja