উত্তরাখণ্ডে মৃতদেহ থেকে ছড়াচ্ছে দূষণ, মহামারীর আশঙ্কা

প্রাকৃতিক দুর্যোগে বিধ্বস্ত উত্তরাখণ্ডের বিভিন্ন এলাকায় আজও ভারী বর্ষণের পূর্বাভাস রয়েছে। বৃষ্টির জেরে নতুন করে ধস নামতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন উদ্ধারকারীরা। তবে, আবহাওয়া খারাপ থাকলেও দুর্গত মানুষদের উদ্ধারের জন্য সবরকম চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া হবে বলে বায়ুসেনার তরফে জানানো হয়েছে। এখনও পর্যন্ত নব্বই হাজারের বেশি মানুষকে উদ্ধার করা হয়েছে। আটকে রয়েছেন প্রায় আট হাজার মানুষ।

Updated: Jun 26, 2013, 11:14 AM IST

প্রাকৃতিক দুর্যোগে বিধ্বস্ত উত্তরাখণ্ডের বিভিন্ন এলাকায় আজও ভারী বর্ষণের পূর্বাভাস রয়েছে। বৃষ্টির জেরে নতুন করে ধস নামতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন উদ্ধারকারীরা। তবে, আবহাওয়া খারাপ থাকলেও দুর্গত মানুষদের উদ্ধারের জন্য সবরকম চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া হবে বলে বায়ুসেনার তরফে জানানো হয়েছে। এখনও পর্যন্ত নব্বই হাজারের বেশি মানুষকে উদ্ধার করা হয়েছে। আটকে রয়েছেন প্রায় আট হাজার মানুষ।
উদ্ধার হয়েছে ৮৩০টি মৃতদেহ।
উত্তরাখণ্ডে বায়ুসেনার কপ্টার ভেঙে পড়ার ঘটনায় সব নিহতেরই দেহ উদ্ধার করা হয়েছে৷ বায়ুসেনা প্রধান মার্শাল এন এ কে ব্রাউনি জানান, কপ্টার ভেঙে পড়ে মৃত ২০ জনের দেহই উদ্ধার করা হয়েছে। কপ্টারের ককপিটের ভয়েস রেকর্ডারও খুঁজে পাওয়া গেছে বলেও তিনি জানিয়েছেন।
গতকাল, গৌরীকুণ্ডে ভেঙে পড়ে বায়ুসেনার কপ্টার। কপ্টারে কুড়ি জন ছিলেন বলে জানা গেছে। ইতিমধ্যেই বারোটি মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। 
উত্তরাখণ্ডের বিভিন্ন জায়গায় পানীয় জলের সঙ্কট দেখা দিয়েছে। মৃতদেহ থেকে ছড়াচ্ছে দূষণ। দেখা দিয়েছে মহামারীর আশঙ্কা। ইতিমধ্যেই গুপ্তকাশীতে জ্বর, ডায়রিয়ায় আক্রান্তের সংখ্যা ১০০ ছাড়িয়েছে। বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা মৃতদেহগুলিতে পচন ধরায় এখনই সেগুলির সতকার করা প্রয়োজন বলে জানিয়েছে প্রশাসন। আবহাওয়া ভালো থাকলে আজই কেদারে সম্পন্ন হবে গণ-অন্ত্যেষ্টি।