বেচাল রাজনীতিতে ইতিবাচক ছোঁয়া আনতে চান রাহুল

আনুষ্ঠানিক ভাবে কংগ্রেসের সহসভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করলেন রাহুল গান্ধী। কংগ্রেসের `নম্বর টু` হয়েই তাঁর গলায় রাজনীতিতে `ইতিবাচক` দিক টানার ইঙ্গিত পাওয়া গেল। দেশের রাজনৈতিক মেজাজ যে আশু খাতে বইছে না সেটা বেশ অনুধাবন করেছেন রাহুল। সেইসঙ্গে, কথায় কথায় বিরোধীদের সমালোচনা করা থেকেও তিনি বিরত থাকবেন বলে মন্তব্য করেছেন গান্ধী পরিবারের কনিষ্ঠতম নেতা।

Updated: Jan 23, 2013, 07:20 PM IST

আনুষ্ঠানিক ভাবে কংগ্রেসের সহসভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করলেন রাহুল গান্ধী। কংগ্রেসের `নম্বর টু` হয়েই তাঁর গলায় রাজনীতিতে `ইতিবাচক` দিক টানার ইঙ্গিত পাওয়া গেল। দেশের রাজনৈতিক মেজাজ যে আশু খাতে বইছে না সেটা বেশ অনুধাবন করেছেন রাহুল। সেইসঙ্গে, কথায় কথায় বিরোধীদের সমালোচনা করা থেকেও তিনি বিরত থাকবেন বলে মন্তব্য করেছেন গান্ধী পরিবারের কনিষ্ঠতম নেতা।
বুধবার দিল্লির ২৪, আকবর রোডের বাড়িতে কংগ্রেসের উচ্চপর্যায়ের বৈঠকের শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে সরাসরি কোনও প্রশ্ন শুনতে চাননি রাহুল। তবে তিনি বলেন, "কংগ্রেসই পরিবর্তনের হাতিয়ার।" পরিবর্তন আনতে যুব সমাজকে আরও বেশি করে রাজনীতির আঙিনায় নিয়ে আসার প্রয়োজন রয়েছে বলে মনে করছেন রাহুল গান্ধী। তিনি আরও বলেন, "রাজনীতির পরিবেশ বাজে ভাবে দুষিত হচ্ছে। দেশের অগ্রগতিতে ইতিবাচক রাজনীতিকে এগিয়ে আনতে চাই।"
গুরু দায়িত্ব পাওয়ার পর নিজের দফতরে প্রথম দিন। ট্রেডমার্ক সাদা কুর্তা আর নীল জিন্সে আত্মবিশ্বাসটাই ধরা পড়ছিল সদ্য অভিষিক্ত সহসভাপতির মেজাজে। গত সপ্তাহেই জয়পুরে চিন্তন শিবিরে সহ সভাপতি মনোনীত হয়েছেন বছর ৪২-এর সাংসদ। ২০১৪-র লোকসভা ভোটের নির্বাচনী প্রচার সংক্রান্ত কমিটির পৌরোহিত্য করবেন রাহুল।
রাজীব গান্ধীর আকস্মিক মৃত্যুর পর না চাইতেও দলের রশি ধরতে হয়েছিল সোনিয়া গান্ধীকে। সোনিয়ার চৌখস অভিজ্ঞতা অনুধাবন করে `গ্রান্ড পার্টির` রাজ সিংহাসনে আজ কংগ্রেস রাজপুত্র। বিশ্লেষকরা মনে করছেন রাহুলের সহসভাপতি হওয়া মানে, সোনিয়া কংগ্রেসের রাহুল কংগ্রেসে পরিণত হওয়ার শুরু। কারও আবার মত, দলের দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ আসনে রাহুল বসলেও কংগ্রেসের নম্বর ওয়ান সনিয়াই, নম্বর ওয়ান...