Assembly Election Results 2017

শ্রীসন্থের কীর্তি

May 16, 2013, 06:07 PM IST
নিজের গালে চড়এপ্রিল ২৫, ২০০৮ কিংস ইলেভেন পঞ্জাব হারিয়ে দেয় মুম্বই ইন্ডিয়ান্সকে। কিন্তু দলের এমন আনন্দের দিনে দেখা যায় শ্রীসন্থের চোখে জল। বাচ্ছা ছেলের মতো কান্নায় ভেঙ্গে পড়েছেন। টিভির স্ক্রিনে কখনও দেখা যায় দলের সহকর্মীর বুকে মাথা লুকাচ্ছেন। এতটাই বিমর্ষ শ্রীসন্থ। ব্যাপার কী? ভাজ্জির চড়ে গাল লাল হয়ে গেছে তাঁর।শ্রীসন্থ সম্বন্ধে আপনার কী মত জানান নিচের কমেন্ট পেজে
1/6

নিজের গালে চড়
এপ্রিল ২৫, ২০০৮ কিংস ইলেভেন পঞ্জাব হারিয়ে দেয় মুম্বই ইন্ডিয়ান্সকে। কিন্তু দলের এমন আনন্দের দিনে দেখা যায় শ্রীসন্থের চোখে জল। বাচ্ছা ছেলের মতো কান্নায় ভেঙ্গে পড়েছেন। টিভির স্ক্রিনে কখনও দেখা যায় দলের সহকর্মীর বুকে মাথা লুকাচ্ছেন। এতটাই বিমর্ষ শ্রীসন্থ।
ব্যাপার কী? ভাজ্জির চড়ে গাল লাল হয়ে গেছে তাঁর।
শ্রীসন্থ সম্বন্ধে আপনার কী মত জানান নিচের কমেন্ট পেজে

শ্রীসন্থ বনাম হেডেনআইপিএল ২০০৯। হেডেন মন্তব্য করেছিল, শ্রীসন্থ ছিল ওভার রেটিং বোলার। তাঁর ক্রিকেটীয় জীবনে প্রতিভা কম প্রচার বেশি। আর সে একটুতেই মেজাজ হারিয়ে ফেলে। এতেই নাকি হেডেনের অনেক সুবিধা হয়ে যায়। পঞ্জাবের সঙ্গে খেলায় হেডেন ১৭ ওভার মাথায় শ্রীসন্থেকে তিনটি ছয় মারে। তারপর হেডন আউট হয়ে যান। তখন শ্রীসন্থ ভয়ঙ্কর মুখাভঙ্গী করে বিতর্ক সৃষ্টি করে।শ্রীসন্থ সম্বন্ধে আপনার কী মত জানান নিচের কমেন্ট পেজে
2/6

শ্রীসন্থ বনাম হেডেন
আইপিএল ২০০৯। হেডেন মন্তব্য করেছিল, শ্রীসন্থ ছিল ওভার রেটিং বোলার। তাঁর ক্রিকেটীয় জীবনে প্রতিভা কম প্রচার বেশি। আর সে একটুতেই মেজাজ হারিয়ে ফেলে। এতেই নাকি হেডেনের অনেক সুবিধা হয়ে যায়। পঞ্জাবের সঙ্গে খেলায় হেডেন ১৭ ওভার মাথায় শ্রীসন্থেকে তিনটি ছয় মারে। তারপর হেডন আউট হয়ে যান। তখন শ্রীসন্থ ভয়ঙ্কর মুখাভঙ্গী করে বিতর্ক সৃষ্টি করে।
শ্রীসন্থ সম্বন্ধে আপনার কী মত জানান নিচের কমেন্ট পেজে

দুই বিতর্কিত খেলোয়াড়ের মান অভিমানমাঠে অথবা মাঠের বাইরে সাইমন্ডস বরাবরই বিতর্কিত মানুষ। কিন্তু এই ভয়ঙ্কর মানুষটিকে টেক্কা দিতে গিয়ে নিজেই বিতর্কে পড়ে যান। সময়টা ছিল ২০০৭, ২ অক্টোবর, কোচি। সাইমন্ডসকে ৮৭ রানে আউট করার পর শ্রীসন্থ তাঁর উচ্ছ্বাস দেখিয়েছিলেন। তবে এমন ছেলেমানুষি ব্যবহার ক্রিকেচ কখনও কদর করেনি।শ্রীসন্থ সম্বন্ধে আপনার কী মত জানান নিচের কমেন্ট পেজে
3/6

দুই বিতর্কিত খেলোয়াড়ের মান অভিমান
মাঠে অথবা মাঠের বাইরে সাইমন্ডস বরাবরই বিতর্কিত মানুষ। কিন্তু এই ভয়ঙ্কর মানুষটিকে টেক্কা দিতে গিয়ে নিজেই বিতর্কে পড়ে যান। সময়টা ছিল ২০০৭, ২ অক্টোবর, কোচি। সাইমন্ডসকে ৮৭ রানে আউট করার পর শ্রীসন্থ তাঁর উচ্ছ্বাস দেখিয়েছিলেন। তবে এমন ছেলেমানুষি ব্যবহার ক্রিকেচ কখনও কদর করেনি।
শ্রীসন্থ সম্বন্ধে আপনার কী মত জানান নিচের কমেন্ট পেজে

ডারবানে ডারউইন লড়াই২০১০-এর ডারবানের দ্বিতীয় টেস্ট। বিতর্কটা তৈরি হয় তৃতীয় দিনে। কোনও কারণে শ্রীসন্থের ব্যবহার ভাল না লাগায় ব্যাট দিয়ে তাঁকে ইঙ্গিত করে গালমন্দ করেন। তারপর শ্রীসন্থের একটি ডেলিভারি স্মিথের আঙুলে চোট পৌঁচ্ছায়। তারপরই শুরু হয়ে দুজনের মধ্যে বাকবিতন্ডা।
4/6

ডারবানে ডারউইন লড়াই
২০১০-এর ডারবানের দ্বিতীয় টেস্ট। বিতর্কটা তৈরি হয় তৃতীয় দিনে। কোনও কারণে শ্রীসন্থের ব্যবহার ভাল না লাগায় ব্যাট দিয়ে তাঁকে ইঙ্গিত করে গালমন্দ করেন। তারপর শ্রীসন্থের একটি ডেলিভারি স্মিথের আঙুলে চোট পৌঁচ্ছায়। তারপরই শুরু হয়ে দুজনের মধ্যে বাকবিতন্ডা।

পিটারসনকে আউট করার পরজেলিবিনের প্রতিশোধ নিতে গিয়ে কী এমন ব্যবহার! ২০১১-এর ইংল্যান্ড সফরে ট্রেন্ট ব্রিজে কেভিন পিটারসনকে আউট করার পর এমনই মুখাভঙ্গী করে বিতর্ক তৈরি করেন। শ্রীসন্থ সম্বন্ধে আপনার কী মত জানান নিচের কমেন্ট পেজে
5/6

পিটারসনকে আউট করার পর
জেলিবিনের প্রতিশোধ নিতে গিয়ে কী এমন ব্যবহার! ২০১১-এর ইংল্যান্ড সফরে ট্রেন্ট ব্রিজে কেভিন পিটারসনকে আউট করার পর এমনই মুখাভঙ্গী করে বিতর্ক তৈরি করেন।
শ্রীসন্থ সম্বন্ধে আপনার কী মত জানান নিচের কমেন্ট পেজে

ডান্স বেবি ডান্সসাল ২০০৬। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্ট ম্যাচে ছয় মেরে নৃত্য করে এভাবেই প্রচারের আলোয় এসেছিলেন শ্রীসন্থ। তাঁর এই কুত্‍সিত অঙ্গভঙ্গি নিয়ে সরগরম হয়েছিল প্রচারমাধ্যম।শ্রীসন্থ সম্বন্ধে আপনার কী মত জানান নিচের কমেন্ট পেজে
6/6

ডান্স বেবি ডান্স
সাল ২০০৬। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্ট ম্যাচে ছয় মেরে নৃত্য করে এভাবেই প্রচারের আলোয় এসেছিলেন শ্রীসন্থ। তাঁর এই কুত্‍সিত অঙ্গভঙ্গি নিয়ে সরগরম হয়েছিল প্রচারমাধ্যম।
শ্রীসন্থ সম্বন্ধে আপনার কী মত জানান নিচের কমেন্ট পেজে