ফেসবুকে এলকোর বিতর্কিত মন্তব্য,ছাড়ো ছাড়ো মনোভাব স্পষ্ট ফেসবুকে এলকোর বিতর্কিত মন্তব্য,ছাড়ো ছাড়ো মনোভাব স্পষ্ট

ইস্টবেঙ্গলের দায়িত্ব নেওয়ার দেড় মাসের মধ্যেই বিতর্কে জড়ালেন এলকো সাতোরি। রয়্যাল ওয়াইন্ডোর বিরুদ্ধে ম্যাচের একদিন আগে ফেসবুকে এলকোর একটি মন্তব্যে রীতিমত আলোড়ন সৃষ্টি হয়। সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটের মাধ্যমে মধ্যপ্রচ্যে যে কোনও দেশে কোচিং করানোর জন্য প্রস্তাব দেন একজন এজেন্ট। সঙ্গে সঙ্গে সেই এজেন্টকে মেলের মাধ্যমে তার সিভি পাঠাতে উতসাহী হয়ে পরেন এলকো। দায়িত্ব নেওয়ার দেড় মাসের মধ্যেই এলকোর এই কর্মকান্ডে নতুন করে বিতর্ক জন্ম দেয় ময়দানে। প্রশ্ন উঠতে শুরু করে তবে কি অল্প কয়েকদিনেই ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে দুরত্ব শুরু হয়েছে ডাচ কোচের? তাই কি এখন থেকেই নতুন চাকরির খোঁজে নেমে পরলেন এলকো। লালহলুদ কর্তারা অস্বস্তিতে পরে যান।

 বিতর্ক এড়াতে আইসিসি ওয়েবসাইট থেকে উধাও 'নো বল' ভিডিও  বিতর্ক এড়াতে আইসিসি ওয়েবসাইট থেকে উধাও 'নো বল' ভিডিও

বিতর্কের সূত্রপাত ভারত বনাম বাংলাদেশ ম্যাচ থেকেই। মেলবোর্নে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে বাংলাদেশি পেস বোলার রুবেল হোসেনের একটি বলে মিড উইকেটে ক্যাচ দেন রোহিত। আউট হয়ে ২২ গজ ছাড়ার আগেই আম্পায়ার আলিন দার নো বল কল করেন। বিতর্কের মূলে ছিল রুবেলের ফুলটস ডেলিভারি। আদৌ কি তা রোহিতের কোমরের ওপরে ছিল?  না কি কোমরের অনেক নিচ থেকেই বলটি হিট করেন তিনি? বিতর্কের জেরে আইসিসি চেয়ারম্যান ও প্রেসিডেন্টের মধ্যে শুরু হয় বাকযুদ্ধ। মুস্তফা কামাল এবং শ্রীনির বিবাদের জের ছড়ায় ভারত ও বাংলাদেশের ক্রিকেট প্রেমীদের মধ্যেও। ফেসবুক, টুইটারে নিজেদের মধ্যে তর্ক-বিতর্কে জড়িয়ে পরেন দুই দেশের ক্রিকেট ভক্তরা। অবশেষে বিতর্ক এড়াতে ওই বিতর্কিত "নো' বলের যাবতীয় তথ্য সরিয়ে নেওয়া হয়।      

 লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট সম্মান অলিম্পিয়ান বলবীর সিংকে লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট সম্মান অলিম্পিয়ান বলবীর সিংকে

হকি ইন্ডিয়ার বার্ষিক পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে মেজর ধ্যানচাঁদ লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট সম্মানে সম্মানিত করা হল বলবীর সিংকে। লন্ডন, হেলসিঙ্কি, মেলবোর্ন। তিনটি অলিম্পিক চ্যাম্পিয়ন ভারতীয় দলের সদস্য ছিলেন ৯০ বছরের বলবীর। অলিম্পিক ফাইনালে সর্বোচ্চ ৫ টি গোল করার রেকর্ডও রয়েছে তাঁর দখলে। হকির প্রতি তাঁর অবদানের জন্যই তাঁকে সারাজীবনের স্বীকৃতি দিল হকি ইন্ডিয়া। তাছাড়া ৩০  লক্ষ টাকার চেকও তুলে দেওয়া হয় বলবীরের হাতে। এরই পাশাপাশি বীরেন্দ্র লাকড়া এবং বন্দনা কাটারিয়াকেও এদিন সম্মানিত করা হয়। সদ্য সমাপ্ত বিশ্ব হকি লিগে টুর্নামেন্ট সেরা হয়েছিলেন এঁরা।