গাব্বায় অস্ট্রেলিয়া অলআউট ৭৪ রানে

শ্রীলঙ্কার সঙ্গে তৃতীয় একদিনের ম্যাচে গাব্বাতে মাত্র ৭৪ রানে গুটিয়ে গেল ব্যাগি গ্রিনদের ইনিংস। স্টিভ ও, রিকি পন্টিং-এর আমলের সেই গর্বের অসি সাম্রাজ্যে ঘুনটা কিছুদিন আগে ধরেছিল। আজ গাব্বার ২২ গজ সেই সাম্রাজ্যের নিশ্চিত পতনের ইঙ্গিত দিয়ে গেল। সেই সঙ্গে গাব্বার কুখ্যাত ক্রিজ বজায় রাখল তার ঐতিহ্য। এই পিচে বড় স্কোর যে হবেই না সে বিষয়ে মোটামুটি নিশ্চিত ছিলেন বিশেষজ্ঞরা। প্রথমে যাঁরা ব্যাট করতে নামবেন তাঁদের নাকানিচোবানি খাওয়াটা নিশ্চিত ছিল।

Updated: Jan 18, 2013, 06:54 PM IST

শ্রীলঙ্কার সঙ্গে তৃতীয় একদিনের ম্যাচে গাব্বাতে মাত্র ৭৪ রানে গুটিয়ে গেল ব্যাগি গ্রিনদের ইনিংস। স্টিভ ও, রিকি পন্টিং-এর আমলের সেই গর্বের অসি সাম্রাজ্যে ঘুনটা কিছুদিন আগে ধরেছিল। আজ গাব্বার ২২ গজ সেই সাম্রাজ্যের নিশ্চিত পতনের ইঙ্গিত দিয়ে গেল। সেই সঙ্গে গাব্বার কুখ্যাত ক্রিজ বজায় রাখল তার ঐতিহ্য। এই পিচে বড় স্কোর যে হবেই না সে বিষয়ে মোটামুটি নিশ্চিত ছিলেন বিশেষজ্ঞরা। প্রথমে যাঁরা ব্যাট করতে নামবেন তাঁদের নাকানিচোবানি খাওয়াটা নিশ্চিত ছিল।
কিন্তু দেশের মাটিতেই ক্লার্কেদের অবস্থা যে এতটা শোচনীয় হবে দুঃস্বপ্নেও বোধ হয় তাঁরা সেটা ভেবে উঠেতে পারেননি। মাত্র ২২ রানে ৫ উইকেটের কুলসেখরের স্বপ্নের স্পেলে অসি ইনিংসের মেরুদন্ডটা দুমড়ে মুচড়ে গিয়েছিল। বাকি কাজ টুকু করে দিলেন লাসিথ মালিঙ্গা। তাঁর ঝুলিতে ৩টি উইকেট।
তবে শ্রীলঙ্কার জয়টাও খুব একটা সহজে এল না। ৭৪ রানের সীমারেখা টপকাতেই দিলশানরা ৬টি উইকেট খোয়ালেন। গাব্বাতে ১৪৯ রানে পড়ল ১৬টি উইকেট! দু`দল মিলিয়ে সর্বোচ্চ স্কোর দিলশনের। তাঁর সংগ্রহ ২২। বাকিরা মোটামুটি শুধু যাওয়া আসার ফর্মুলা মন দিয়ে পালন করে গেলেন।
আগের ম্যাচে পরাজয়ের পর ব্রিসবেনে মোটামুটি পূর্ণ শক্তি নিয়ে খেলতে নেমেছিল অস্ট্রেলিয়া। ক্লার্ক, ওয়ার্নার, ওয়াডে- অসিদের ব্যাটিং স্তম্ভের মূল তিন কারিগরের কেউই দুই অঙ্কের রানে পৌঁছাতে পারলেন না। প্রকৃতপক্ষে শেষ উইকেটে স্টার্ক আর ডোহের্টি দু`অঙ্কের ঘরে ঢুকতে না পারলে অসিদের অবস্থা আরও করুণ হত।