`অভিভাবক` ছাড়া ঋদ্ধিদের এলোমোলো দেখাচ্ছে

মনোজ তিওয়ারি, অশোক দিন্দা খেলতে পারছেন না। তাই এই ম্যাচে বাংলা অভিভাবকহীন বলাই যায়। আর অভিবাবক ছাড়া সংসারে যে সমস্যা হয় সেটাই ধরা পড়ল ইন্দোরে বাংলা-মধ্যপ্রদেশ রঞ্জি ম্যাচে। প্রথম দিনের শেষে মধ্যপ্রদেশের স্কোর ৫ উইকেটে ৩২২। স্কোরবোর্ডই বলে দিচ্ছে ইন্দোরে বাংলার বিরুদ্ধে রঞ্জি ট্রফির ম্যাচে বড় রানের দিকে এগোচ্ছে মধ্যপ্রদেশ।

Updated: Nov 24, 2012, 07:55 PM IST

মধ্যপ্রদেশ: ৩২২/৫
মনোজ তিওয়ারি, অশোক দিন্দা খেলতে পারছেন না। তাই এই ম্যাচে বাংলা অভিভাবকহীন বলাই যায়। আর অভিবাবক ছাড়া সংসারে যে সমস্যা হয় সেটাই ধরা পড়ল ইন্দোরে বাংলা-মধ্যপ্রদেশ রঞ্জি ম্যাচে। প্রথম দিনের শেষে মধ্যপ্রদেশের স্কোর ৫ উইকেটে ৩২২। স্কোরবোর্ডই বলে দিচ্ছে ইন্দোরে বাংলার বিরুদ্ধে রঞ্জি ট্রফির ম্যাচে বড় রানের দিকে এগোচ্ছে মধ্যপ্রদেশ।
এদিন টসে জিতে মধ্যপ্রদেশকে প্রথম ব্যাট করতে পাঠান বাংলার অধিনায়ক ঋদ্ধিমান সাহা। শুরুতেই মধ্যপ্রদেশকে ধাক্কা দেন সামি আমেদ। ৩৬ রানের মধ্য জাফর আলি ও এসডি চৌধুরিকে প্যাভিলিয়নে ফেরান তিনি কিন্তু এরপর নমন ওঝা ও অধিনায়ক বুন্দেলা দলকে লড়াইয়ে ফেরান। নমন মাত্র এক রানের জন্য শতরান হাতছাড়া করেন। নমন ৯৯ ও বুন্দেলা ৬১ রানে আউট হলেও বিড়লা, রামিজ খান ও জলজ সাক্সেনা দলকে ৩০০ গণ্ডি পার করে দেন। বিড়লা ৫০ রানে আউট হন। তবে রামিজ খান ৩৫ ও জলজ সাক্সেনা ৪৪ রানে অপরাজিত আছেন। বাংলার বোলাররা শুরুতে কারাপ না করলেও অভিজ্ঞতার অভাব টের পাওয়া গেল। দিন্দা এখন ধোনির সংসারে, বাংলার ক্রিকেট পরিবার তাই কিছুটা ফাঁকাফাঁকা। অধিনায়ক নেই, বোলিং অধিনায়কও নেই। প্রথম দিনে বাংলাও তাই ঠিক স্বস্তিতে নেই।