সরলেন শ্রীনি, বোর্ডের অন্তর্বর্তীকালীন সভাপতি হলেন ডালমিয়া

Last Updated: Sunday, June 2, 2013 - 15:12

চেন্নাইয়ে রুদ্ধশ্বাস নাটকের পর মাস্টারস্ট্রোক মেরে ভারতীয় ক্রিকেটে ফের সিংহাসনে বসলেন সিএবি সভাপতি জগমোহন ডালমিয়া। চেন্নাইয়ে বোর্ডের জরুরি কর্মসমিতির বৈঠকের পর শ্রীনিবাসন পদত্যাগ করায় অন্তর্বর্তীকালীন সভাপতি হলেন ডালমিয়া। ২০০৫ বোর্ড নির্বাচনে শরদ পাওয়ারের কাছে হারের পর প্রায় হারিয়ে যেতে বসা ডালমিয়া ফের তখত ফিরে পেলেন। 
মিটিংয়ের শুরু থেকে শ্রীনির বিরোধী শিবির ডালমিয়ার বিষয়ে আপত্তি তুললেও ধোপে টিকলো না। ১৯৯৬ সালে প্রথমবার বিসিসিআই সভাপতি হন ডালমিয়া। এক বছর পরে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থা আইসিসি-র সভাপতি নির্বাচিত হন। এরপর অনেকগুলো বছর একচ্ছত্র রাজ চলে ডালমিয়ার। কিন্তু ২০০৫ সালে শরদ পাওয়ারের হেরে বোর্ডের দায়িত্ব খোয়াতে হয়। এমনকী একটা সময় সিএবি নির্বাচনেও হেরে যান ডালমিয়া। কিন্তু শ্রীনির সর্বনাশকে কাজে লাগিয়ে ডালমিয়া নিজের পৌষমাস করে নিলেন।
সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকার সুযোগটা কাজে লাগিয়ে ভারতীয় ক্রিকেটে পাকাপাকিভাবে ডালমিয়া রাজ ফেরে কিনা সেটাই দেখার।
অগ্নিপরীক্ষার বৈঠকের শুরুতেই হোঁচট খান শ্রীনিবাসন। বোর্ডের সভাপতিকে চমকে দিয়ে বিরোধী গোষ্ঠী দাবি তুলল এই সভায় শ্রীনিকে সভাপতিত্ব করতে পারবেন না।
চেন্নাইয়ের পাঁচতারা হোটেলে বিসিসিআইয়ের ওয়ার্কিং কমিটির জরুরি বৈঠক শুরু হয় আড়াইটের সময়। কিন্তু তার তিন ঘণ্টা আগেই বৈঠকস্থলে পৌঁছে গেলেন শ্রীনিবাসন। যে পাঁচতারা হোটেলে বৈঠক হওয়ার কথা সেখানে পৌঁছে গেলেন শ্রীনি। কিছুপরেই সেখানে পৌঁছে যান আইএস বিন্দ্রা ও জগমোহন ডালমিয়া। শ্রীনির ঘোরবিরোধী বিন্দ্রা নাকি বৈঠকের আগে শ্রীনির সঙ্গে রফাসূত্র বের করার চেষ্টা করবেন বলে খবর।ডালমিয়ার সঙ্গেও শ্রীনিবাসন একপ্রস্থ বৈঠক করেন বলে খবর।
দেখুন কর্মসমিতির এই বৈঠকে কী হচ্ছে--
৪.১৫টা-- বোর্ডের অন্তর্বর্তীকালীন সভাপতি হচ্ছেন জগমোহন ডালমিয়া। সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত দায়িত্ব সামলাবেন তিনি।
৪.০০টা--  স্পট ফিক্সিং কাণ্ডের তদন্ত শেষ না পর্যন্ত সরতে হচ্ছে শ্রীনিবাসনকে।
৩.৩০টা- ডালমিয়ার নাম প্রস্তাব করেন অরুণ জেটলি। বিরোধীতা করেন আইএস বিন্দ্রা।
৩.২০টা- বৈঠকে তুমুল বচসা চলছে। শ্রীনি বললেন, আমার বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ নেই, তাই পদত্যাগ করব না।
৩.১৫টা-- বৈঠকে সভাপতি হিসাবে ডালমিয়ার নামের বিরোধিতা করল শ্রীনি-বিরোধী লবি এখনই ইস্তফা দিতে রাজি নন বলে বৈঠকে জানালেন শ্রীনিবাসন
চেন্নাইয়ে বোর্ডের বৈঠকের শুরুতেই হট্টগোল বিরোধীদের। বৈঠকে সভাপতিত্ব করছেন শ্রীনিবাসন। শ্রীনির সভাপতিত্ব নিয়ে আপত্তি তোলা হচ্ছে।
দুপুর ২.৩০টা- চেন্নাইয়ে শুরু হল বোর্ডের জরুরি বৈঠক। গোটা দেশের নজর এই বৈঠকের দিকে।
সভাপতি হিসাবে ডালমিয়ার নাম প্রস্তাব করলেন এন শ্রীনিবাসন। শ্রীনি কিছুতেই চাইছেন না তাঁর জায়গায় শশাঙ্ক মনোহর ক্ষমতায় আসুন।
চেন্নাইয়ে বিস্ফোরক আইএসবিন্দ্রা , বললেন শ্রীনিকে এখনই পদত্যাগ করতে হবে
আজকের বৈঠকে যাবেন না অরুন জেটলি
দুপুর ২.৩০টা থেকে শুরু হতে চলা মিটিংয়ে যোগ দিতে চেন্নাইয়ে পা দিচ্ছেন বোর্ড কর্তারা
সকাল থেকেই বোর্ডের বিরোধীদের ঘুটি সাজানো শুরু

 অন্যদিকে, চেন্নাইয়ে নেমেই বিস্ফোরক প্রাক্তন বোর্ড সভাপতি আইএস বিন্দ্রা।
পঞ্জাব ক্রিকেট অ্যাসোশিয়েসনের সভাপতি বিন্দ্রা বৈঠকে যোগ দিতে এসে
জানালেন,ক্রিকেটে সাম্প্রতীক যা ঘটনা ঘটেছে তারজন্য শ্রীনিবাসনের পদত্যাগ
করা উচিত।
তিনি পদত্যাগ করার পরই শুরু হয় বিসিসিআইয়ের রাজনীতিতে ডামাডোল। প্রাক্তন
বোর্ড সচিব সঞ্জয় জাগদালে বোর্ড রাজনীতিতে এতটাই বিরক্ত,যে তিনি আর বোর্ডের
প্রশাসনিক বিষয়ে আসতে চান না। চেন্নাইয়ে বোর্ডের ওয়ার্কিং কমিটির জরুরি
বৈঠক নিয়ে যখন তুলকালাম,তখন নিজের বাড়িতে বসে জাগদালে জানান, তিনি এখন
অবসরজীবন কাটাতে চান।



First Published: Sunday, June 2, 2013 - 16:53


comments powered by Disqus